মেইন ম্যেনু

ইয়েমেনে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের পাশে আল-কায়েদা

ইয়েমেনে শিয়া হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে লড়াইরত সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের পাশে থেকে অংশ নিচ্ছে আল-কায়েদার জঙ্গিরাও। বিবিসি বলছে, এই বিষয়ে তাদের কাছে প্রমাণ রয়েছে।

দেশটিতে সরকারি বাহিনীকে শিয়া হুতিদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সহযোগিতা করছে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট।

একজন নারী তথ্যচিত্র নির্মাতা তায়েজ শহর পরিদর্শনকালে দেখতে পান, সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) সেনাদের সহায়তায় আল-কায়েদার জিহাদি ও সরকারপন্থি যোদ্ধারা পাশাপাশি লড়াই করছেন।

প্রায় ১০টি সুন্নি আরব দেশের জোট ইয়েমেনে শিয়াদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সরকারি বাহিনীকে সহায়তা করছে।

সৌদি জোটভুক্ত আরব দেশগুলো আল কায়েদাকে একটি সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে বিবেচনা করে।

ইয়েমেনের সরকারপন্থি বাহিনী তায়েজের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার জন্য মাসের পর মাস লড়াই চালাচ্ছে। শহরটি হুতি বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রিত রাজধানী সানা থেকে ১২৩ মাইল দক্ষিণে অবস্থিত।

তীব্র লড়াইয়ের ফলে তায়েজে ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞ হয়েছে। জাতিসংঘ বলছে প্রায় দুই লাখ বেসামরিক মানুষ শহরটিতে আটকা পড়েছে যাদের জরুরি ভিত্তিতে ওষুধ এবং খাদ্য প্রয়োজন।

গেল বছর তায়েজ শহরের বাইরের অঞ্চল পরিদর্শনকালে তথ্যচিত্র নির্মাতা সাফা আল আহমেদ সরকারপন্থি যোদ্ধাদের সঙ্গে কথা বলেন। এই যোদ্ধারা পাহাড়ি একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার জন্য ইউএই বাহিনীর নির্দেশনা অনুযায়ী হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে লড়াই করছিলেন।

সেখানে সাফা আল আহমেদকে যুদ্ধে অংশ নেওয়া একটি গোষ্ঠীর সদস্যদের ভিডিওতে ধারণ না করার জন্য সতর্ক করা হয়।

তাকে বলা হয়, এই যোদ্ধারা আরব উপদ্বীপের (একিউএপি) আল-কায়েদার সঙ্গে সম্পৃক্ত আনসার আল-শরিয়ার সদস্য। আর তারা এখানে একজন নারীর উপস্থিতি নিয়ে ক্ষুব্ধ।

দক্ষিণ ইয়েমেনে দীর্ঘদিন ধরেই আল-কায়েদার উপস্থিতি রয়েছে। এর সমর্থকেরা সুন্নি মুসলিম- যারা শিয়া মুসলিম বিদ্রোহীদের কট্টর বিরোধী।






মন্তব্য চালু নেই