মেইন ম্যেনু

ঈদের আগেই অস্থিতিশীল ভোলার দুধের বাজার

ভোলায় জেলা প্রশাসনের নির্ধারিত মূল্যের তোয়াক্কা না করে ঈদের এক সপ্তাহ আগেই অস্থিতিশীল হয়ে উঠেছে দুধের বাজার। চার পাঁচ দিনের ব্যবধানে ৪০ টাকার প্রতি লিটার দুধ ৭০ থেকে ৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ঈদের আগমূহূর্তে দাম ১০০ টাকা ছাড়িয়ে যাবে বলে ধারণা করছেন ক্রেতারা। ক্রেতারা জানান, রমজানের শুরুতে ভোলার বাজার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে জেলা প্রশাসক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেন।

ওই সভায় দুধ ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলোচনা করে গরুর দুধের দাম ৩০ থেকে ৩৫ টাকা ও মহিষের দুধের দাম ৩৫ থেকে ৪০ টাকা বিক্রি নির্ধারণ করা হয়। কিন্তু ২০ রমজান পর্যন্ত ওই নিয়মেই বাজার চলে আসছিল। এর পর থেকেই দুধের বাজার বাড়তে শুরু করে। গতকাল শুক্রবার গরুর দুধ বিক্রি হয়েছে ৭০ থেকে ৮০ টাকায় আর মহিষের দুধ বিক্রি হয়েছে ৮০ থেকে ৮৫ টাকায়!

দুধ বাজারের ঊর্ধ্বগতিতে সাধারণ মানুষ বাজার নিয়ন্ত্রণে প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। ঘোষপট্টির এক ব্যবসায়ী ইসমাইল ও কালাম জানান, ঈদকে সামনে রেখে কিছু ব্যবসায়ী দুধ স্টক করে ফ্রিজাপ করছেন।

এ জন্য ঈদের এক সপ্তাহ আগেই অস্থিতিশীল হয়ে উঠেছে বাজার। দুধ ব্যবসায়ীরা জানান, সামনে ঈদ থাকায় গোয়ালারা বাজারে আনার আগেই এলাকায় দুধ বিক্রি করে দিচ্ছেন। দুই চারজন বাজারে আনলেও দাম বাড়তি না দিলে বিক্রি করছেন না। তাই বাধ্য হয়ে আমাদেরও বাড়িয়ে বিক্রি করতে হচ্ছে।






মন্তব্য চালু নেই