মেইন ম্যেনু

ঈদের ছুটিতে হয়ে যাক মধুচন্দ্রিমা

চলতি বছরেই বিয়ে হয়েছে। ছুটি না মেলায় মধুচন্দ্রিমায় যাওয়া হচ্ছে না। কিন্তু সামনেই পাচ্ছেন ঈদের বেশ লম্বা একটা ছুটি। মধুচন্দ্রিমায় যেতে উন্মুখ হয়ে থাকা শখকে এবার বুঝি স্বস্তি দেয়ার সময় হল। তাই এখনই মধুচন্দ্রিমার পরিকল্পনাটা দুজনে মিলে করে নিন। বেছে নিন সব সুযোগ সুবিধার সঙ্গে পছন্দের কোনো জায়গা।

আজকাল অনেকেই দেশের বাইরে যাওয়ার জন্য মধুচন্দ্রিমার পরিকল্পনা করে থাকেন। সেক্ষেত্রে অন্যের কাছ থেকে জেনে নিতে পারেন ভ্রমনের কিছু জায়গা সম্পর্কে। তবে জায়গা পছন্দ করা থেকে শুরু করে হলিডে এক্টিভিটিজের খোঁজখবর নেয়ার কাজ দুজনে মিলেই ঠিক করুন।

অনেক সময় দুজনের পছন্দ নাও মিলতে পারে। একে অপরের ওপর চাপিয়ে দেয়া সিদ্ধান্তের ট্যুরে কোনো ধরনের সমস্যা হলে সারাজীবন কথা শুনে যেতে হবে। তাই দুজনে মিলে সব কিছু ঠিক করা ভালো।

প্রযুক্তির এই যুগে সবচেয়ে বড় হাতিয়ার ইন্টারনেট। সেখান থেকে প্রয়োজনীয় তথ্য ঘেঁটে অজানা জায়গা সম্পর্কে জেনে নিতে পারেন। বিশ্বস্ত ট্রাভেল এজেন্টের কাছ থেকে ভালো করে খোঁজখবর নিয়ে তারপর যান। যদি অন্য ধরনের মধুচন্দ্রিমার পরিকল্পনা করতে চান তাহলে ক্রুজিং খুব ভালো অপশন হতে পারে। নানা ধরনের বাজেটে ক্রুজ রয়েছে। ক্রুজে বেড়াতে গেলে বিভিন্ন জায়গা দেখার সঙ্গে আরাম-বিলাসের প্রচুর সুযোগ থাকে।

এছাড়াও প্যাকেজের মধ্যে থাকা আয়োজনে জঙ্গল, পাহাড় বা সমুদ্রের কাছাকাছি রিসোর্টেও আরাম এবং অ্যাডভেঞ্চারের অনেক সুযোগ পাবেন। তাদের আয়োজনে স্পা, সুইমিং পুল, বোর্ড গেমসের সঙ্গে সঙ্গে মাউটেন হাইকিং, বিচ এক্টিভিটিজ বা সাফারিও উপভোগ করতে পারেন। মধুর স্মৃতিগুলো ধরে রাখতে সঙ্গে ক্যামেরা, আরামের কথা বিবেচনা করে প্রয়োজনীয় পোশাক, কসমেটিকস সঙ্গে রাখতে পারেন।






মন্তব্য চালু নেই