মেইন ম্যেনু

ঈদের পর ক্রেতাশূন্য কাচাবাজার

ঈদের ছুটি শেষে বেশির ভাগ মানুষ এখনো ফেরেননি রাজধানী ঢাকায়। ফলে অনান্য মার্কেটগুলোর মতো রাজধানীর কাচাবাজারগুলো এখনো ক্রেতা শূন্য। এছাড়া ক্রেতা কম থাকায় দামও অনেকটা কম। পরিস্বাভাবিক হতে আরো দুই-তিন দিন সময় লাগবে জানান বিক্রেতারা।

শুক্রবার সকালে রাজধানীর বিভিন্ন কাচাবাজার ঘুরে দেখা গেছে, ক্রেতা কম থাকায় সবজির দাম ছিল অনেক কম। তবে কাচা মরিচের দাম এখনো কমেনি। এখনো ২০০ থেকে ২২০ টাকা বিক্রি হচ্ছে কাচামরিচ। আর পেপে ২০ থেকে ২৫ টাকা, আলু ২৫ টাকা, জিংগা ৩০ টাকা, কাকরোল ৩৫ থেকে ৪০, পটল ৩০ থেকে ৩৫, বরবটি ৪০ টাকা, কুমড়া ২৫ থেকে ৩০ টাকা, লতি ৪০ টাকা, কচুর ছড়া ৩০ থেকে ৩৫ টাকা।

চালের দর প্রতি কেজি প্রকার ভেদে ৩২ থেকে ৫৪ টাকা, মুসুর ডাল প্রতি কেজির মূল্য ১২০ টাকা থেকে শুরু করে ১৩০ টাকা, চিনি প্রতি কেজির মূল্য ৫৫ থেকে ৬০ টাকা, পেয়াজ ৩৫ থেকে ৪০ টাকা, রসুন প্রতিকেজি ৯০ থেকে ১২০ টাকা ও মরিচের গুড়ো প্রতিকেজি ৪২০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি করেছে ব্যবসায়ীরা।

রাজধানীর কচুক্ষেত বাজারের একাধিক ব্যবসায়ীরা জানায়, মোকামে দর বাড়লে আমরাও বাধ্য হয়ে চড়া দামে বিক্রি করে থাকি। এখন দাম কম তাই কম দামে বিক্রি করছি, তাও ক্রেতা নেই।

তবে বাজার পরির্দশন করে তেমন তারতম্য দেখা যায়নি। রাজধানীর অন্যান্য বাজারের মতো মহাখালী কাচা বাজারেও মাছের দাম কিছুটা কমলেও শুকনো জিনিসপত্র তথা গরম মসলার দাম ছিল কিছুটা বাড়তি। জিরা প্রতি কেজি ৯শ` থেকে ১১শ` টাকা, এলাচ ৫০ গ্রাম ১শ` টাকা, দারুচিনির দামও বেশি।






মন্তব্য চালু নেই