মেইন ম্যেনু

উখিয়ায় ড্রাইভাররা অতিরিক্ত যাত্রী ও ভাড়া আদায়ের অভিযোগ

কক্সবাজার- উখিয়া-টেকনাফ সড়কের যাত্রীদের নিকট থেকে অতিরিক্ত ভাড়া ও যাত্রী নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ঈদ পরবর্তী যাত্রীদের প্রচন্ড ভিড় থাকার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে অসাধু চালকেরা যাত্রীদের জিম্মি করে উখিয়া-কক্সবাজার ২৬ কিলোমিটার সড়কের নির্ধারিত ৬০ টাকা ভাড়ার স্থলে ১শত ২০ টাকা পর্যন্ত অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে।

অথচ সিএনজি মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দরা অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের বিষয়টি অস্বীকার করছে। যাত্রীদের দাবি, চালকদের কথামত ভাড়া আদায় না করলে তাদেরকে নাজেহাল করা হচ্ছে। পুলিশ বলছে, ঈদ পরবর্তী যাত্রীদের যাতে কোন প্রকার হয়রানির শিকার হতে না হয় সেজন্য পুলিশ সড়কে কাজ করছে।

বেশ কয়েকজন যাত্রীর সাথে কথা বলে জানা যায়, ঈদ পরবর্তী বিভিন্ন আত্মীয় স্বজনের বাসা বাড়িতে বেড়ানোর উদ্দেশ্যে আসা-যাওয়ারত যাত্রীর সংখ্যা আশংকাজনক বেড়ে যাওয়ার কারণে চালকেরা সুযোগের সদ্ব্যবহার করছে। বটতলী গ্রামের যাত্রী নুর আলম জানায়, বটতলী থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত ৫০ টাকার স্থলে তার কাছ থেকে জোর করে ১শত টাকা আদায় করা হয়েছে।

একাধিক যাত্রী জানান, উখিয়া থেকে একটি সিএনজি সাড়ে ৩শত টাকায় কক্সবাজার যাতায়ত করলেও ঈদের সুযোগে চালকেরা ৫শত টাকা, ক্ষেত্র বিশেষে ৬শত টাকা পর্যন্ত আদায় করছে। যে কারণে যাত্রীরা আর্থিকভাবে হয়রানির শিকার হলেও অনেকেই ঈদ আনন্দের কারণে তা মুখ বুঝে সহ্য করছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে উখিয়া মাহিন্দ্রা সিএনজি চালক সমবায় সমিতির সভাপতি মামুন চৌধুরী জানান, অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের বিষয়টি সত্য নয়। তবে পেট্রোল অকটেনের মূল্য বৃদ্ধির কারণ সহ ঈদ পরবর্তী যাত্রীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় মাঝে মধ্যে চালকেরা কিছু কিছু ক্ষেত্রে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে।

উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ জহিরুল ইসলাম খান জানান, ঈদের আগে ও পরে সব ধরনের যাত্রীদের নিরাপদ যাতায়তের জন্য পুলিশ সড়কের বিভিন্ন স্থানে কাজ করছে। তিনি অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের বিষয়টি অবগত নয় বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।






মন্তব্য চালু নেই