মেইন ম্যেনু

উজিরপুরের জল্লায় নামজজ্ঞ অনুষ্ঠানের তোরন কেটে ফেলেছে দুবৃত্তরা

বরিশাল প্রতিনিধি: উজিরপুরের জল্লা ইউনিয়নের দক্ষিন বাহেরঘাট গ্রামের গনেশ গোস্বামীর বাড়িতে সার্বজনিন বারুনি স্নান ও মহা নাম জজ্ঞের নির্মিত তোরন কুপিয়ে কেটে ফেলেছে এবং রাস্তায় বাঁশের বেড়া দিয়ে ভক্তবৃন্দের যাতায়াতে বিঘ সৃষ্টি করেছে ওই এলাকার চিহ্নিত দুবৃত্তরা। এ ঘটনা বৃহস্পতিবার গভির রাতে ঘটানো হয়েছে বলে স্নান ও নামযজ্ঞ আয়োজকদের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে।

শুক্রবার সকালে সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গেলে আয়োজকদের পক্ষ থেকে সভাপতি অরুন কুমার দাশ,সম্পাদক পরিমল হালদার,কোষাধ্যক্ষ দীবস চন্দ্র দেউরি,রাম লাল বাড়ৈ,জয়দেব বাড়ৈ এবং চৌকিদার মোঃ নাজির ইসলাম অভিযোগ করে বলেন বাহেরগাট গ্রামের অনিল বিশ্বাস,শুনিল হালদার,নান্টু বিশ্বাস সহ আরো কিছু দুবৃত্তরা গত বছরও এ অনুষ্ঠানে হামলা চালিয়ে অনুষ্ঠান পন্ড করতে চেয়েছিলো, এ বছরও স্থানিয় অনিল বিশ্বাস ও তার ভক্তবৃন্দের যাতায়াতের পথে বাঁশের বেড়া দিয়ে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে ও অনুষ্ঠানের জন্য নির্মিত তোরনটি বৃহস্পতিবার গভির রাতে কুপিয়ে কেটে ফেলে এবং অনুষ্টানকে বানচাল করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে বলেও অভিযোগ করেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আলী হায়দার নান্নু জানিয়েছেন দক্ষিন বাহেরঘাট গ্রামে গত ৬০/৬৫ বছর যাবৎ গনেশ গোস্বামীর বাড়িতে মধু কৃষ্ণ ত্রয়োদশি তিথিতে ৩ দিন ব্যাপী হরিনাম মহাজজ্ঞ ও বারুনি স্নান হয়ে আসছে,এখানে প্রতিবছর প্রায় লক্ষাধীক ভক্তবৃন্দের উপস্থিতি ঘটে এবং এলাকার হিন্দু,মুসলিম,খৃস্টান সকলে জাতি ধর্ম নির্বিষেশে এ অনুষ্ঠানে সহযোগীতা করে স্বার্থক করে তোলে।

এব্যপারে অভিযুক্ত অনিল হালদার তাদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বিকার করে বলেছেন ওই রাস্তার জমি আমাদের হলেও আমরা রাস্তায় কোন বেড়া দেইনি এবং নির্মিত তোরনের আমরা কোন ক্ষতি সাধন করিনি এবং ওই অনুষ্টানের কোন ক্ষতি হোক বা হতে পারে এমন কোন কাজও আমরা করিনি।

এ ব্যাপারে উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্য মোঃ নুরুল ইসলাম পিপিএম জানিয়েছেন মৌখিক ভাবে ঘটনা শুনেছি আয়োজকদের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।






মন্তব্য চালু নেই