মেইন ম্যেনু

সিংড়া পৌরসভার ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে ৪৯ কোটি টাকার বাজেট ঘোষনা

উন্নয়নে বাংলাদেশের মডেল হবে সিংড়া পৌরসভা

নাটোর প্রতিনিধি: তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি বলেছেন, উন্নয়নে বাংলাদেশের মডেল হবে সিংড়া পৌরসভা। তিনি শনিবার দুপুরে নাটোরের সিংড়া পৌর সম্মেলন কক্ষে পৌরসভার ২০১৬-১৭অর্থ বছরের বাজেট অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।

পৌরসভার মেয়র মোঃ জান্নাতুল ফেরদৌস এর সভাপতিত্বে প্রতিমন্ত্রী পলক আরও বলেন, সিংড়া পৌরসভা প্রতিষ্ঠার পর থেকে ১৬বছর প্রত্যাশা থাকলেও নাগরিকরা উন্নয়ন বঞ্চিত ছিল। সর্বশেষ পৌরসভা নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীকে প্রায় ১০হাজারেরও বেশি ভোটের ব্যবধানে মেয়র নির্বাচিত করেছে পৌরসভার নাগরিকরা। তাই মেয়রের কাছে নাগরিকদের প্রত্যাশা আরও বেড়ে গেছে।

তিনি আরও বলেন, জনগণের আশা আকাঙ্খা পুরণের লক্ষ্যে জননেত্রী শেখ হাসিনা নেতৃত্বে কাজ করছে সরকার। এজন্য ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে বিশাল বাজেট প্রনয়ন করেছেন। সচ্ছতা এবং জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা গেলে বাজেট বাস্তবায়ন সম্ভব হবে। এর জন্য জনগণের সহযোগিতা এবং অংশগ্রহণ একান্ত জরুরী।

বাজেট অধিবেশনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট ওহিদুর রহমান শেখ।

এছাড়াও বিশিষ্ট রবীন্দ্র গবেষক ড. আশরাফুল ইসলাম, সিংড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাসির উদ্দিন মন্ডল, ,গোল ই আফরোজ সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ আতিকুর রহমান, পৌরসভার প্যানেল মেয়র শফিকুল ইসলাম, সচিব আঃ মতিন সহ সুশীল সমাজের নাগরিক, বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বৃন্দ ও গণমাধ্যকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

বাজেট অধিবেশনের শুরুতে সিংড়া পৌরসভার হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা মির্জা সালাহ উদ্দিন ২০১৬-১৭ অর্থ বছরের ৪৮ কোটি ৭৯ লাখ ৬৩ হাজার দুইশত সাইত্রিশ টাকার এই বাজেট পেশ করেন।

বাজেটে উন্নয়ন সহায়তা খাতে সরকারী বরাদ্দ সাত কোটি ষাট লক্ষ টাকা, বিশেষ প্রকল্পের জন্য উন্নয়ন বরাদ্দ আটত্রিশ কোটি টাকা, রাজস্ব খাতে মোট বরাদ্দ তিন কোটি চার লক্ষ আঠারো হাজার পাঁচশত একাত্তর টাকা তেতাল্লিশ পয়সা, রাজস্ব খাতে উন্নয়ন বরাদ্দ পাঁচ লক্ষ টাকা, সার্বিক বাজেট উদ্বৃত্ত এক কোটি ঊননব্বই লক্ষ আঠারো হাজার চল্লিশ টাকা ধরা হয়েছে।

বাজেটে সরকারী বরাদ্দের পাশাপাশি পৌরসভার রাজস্ব তহবিল হতে রাস্তা ঘাট, ব্রীজ কালভার্ট ,ড্রেন নির্মান,স্কুল,কলেজ,মাদ্রাসা, মসজিদ,মন্দির, ঈদগাহ মাঠ সংস্কার ও উন্নয়নমূলক কাজের মহা কর্ম-পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে।

এছাড়াও বাজেটে পয়ঃনিস্কাশন, সড়ক বাতি স্থাপন,মসক ও কুকুর নিধন, বৃক্ষরোপন সহ বিভিন্ন খাতে বিশেষ গুরুত্ব আরোপ করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই