মেইন ম্যেনু

এই তিন তারকা একসময় শরণার্থী ছিলেন

বাংলাতে একটা প্রবাদ আছে ‘বিধির লিখন যায় নাহ খন্ডন’। তাদের ক্ষেত্রে এমনটাই ঘটেছে। বিশ্বখ্যাত অনেক তারকাকে নানা কারণে জীবনের একটি সময় শরণার্থীর জীবন বেছে নিতে হয়েছিল৷ আর এমনই তিনজন বিখ্যাত মানুষ সংগীতশিল্পী থেকে শুরু করে অভিনেত্রী হয়েছেন। আজকের এ লেখায় থাকছে তাদেরই কথা।

মারলেনে ডিটরিশ

১৯০১ সালে জার্মানিতে জন্ম নেয়া ডিটরিশ গায়িকা ও অভিনেত্রী হিসেবে বেশ নাম কুড়িয়েছিলেন। ১৯৩০ সালে তিনি হলিউডে কাজ করতে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান। সেখানে থাকলেও নাৎসি আমলের সমালোচনায় মুখর ছিলেন তিনি। ১৯৩৯ সালে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্ব গ্রহণ করেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় তিনি মার্কিন বাহিনীর জন্য গান গেয়েছেন। নাৎসি সরকার জার্মানিতে তাঁর মুভি প্রদর্শনের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল।

বেলা বার্টোক

হাঙ্গেরির কম্পোজার, পিয়ানোবাদক ও লোক সংগীত সংগ্রাহক বার্টোক ইহুদি ছিলেন না। কিন্তু নাৎসিদের হাতে ইহুদিদের নিপীড়িত হওয়ার বিষয়টির ঘোর সমালোচক ছিলেন তিনি। ফলে ১৯৪০ সালে তাঁকে যুক্তরাষ্ট্রে চলে যেতে হয়।

মিরিয়াম মাকেবা

‘মামা আফ্রিকা’ নামে পরিচিত দক্ষিণ আফ্রিকার সংগীত শিল্পী মাকেবা একবার গান গাইতে যুক্তরাষ্ট্র গিয়েছিলেন। সেই সময় দক্ষিণ আফ্রিকার সরকার বর্ণবাদবিরোধিতার অভিযোগে তাঁর পাসপোর্ট বাতিল করে দেয়। ফলে তিনি আর দেশে ফিরতে পারেননি। কয়েক দশক পর অবস্থার পরিবর্তন হলে দেশে ফিরে যান মাকেবা।






মন্তব্য চালু নেই