মেইন ম্যেনু

এই না হলে সুপার গার্ল?

টয়া এখন সুপারগার্ল। তানিম রহমান অংশুর নতুন ধারাবাহিক ‘সুপার গার্লস’ এর একজন তিনিও। এখানে তাকে দেখা যাবে একজন অভিনেত্রীর চরিত্রে। মধ্যবিত্ত আদর্শের একজন, থাকেন অন্য দুই সুপার গার্লস এর সঙ্গে। গল্পের বাকিরা কেউ উপস্থাপক, কেউ বাস্কেটবল প্লেয়ার, কেউবা সঙ্গীতশিল্পী। সবাই স্ব স্ব ক্ষেত্রে আত্মশক্তিতে পূর্ন। এ জন্যই তারা সুপারগার্ল। বলছিলেন টয়া।

সম্প্রতি দু’দিন শুটিং হয়েছে ধারাবাহিকটির। আবার শুরু হচ্ছে শিগগিরই। টয়াই সংবাদ সূত্র। তিনি জানালেন, খুব চমৎকার একটি কাজ হতে যাচ্ছে। স্ক্রিপ্ট টা এমনভাবে সাজানো হয়েছে যে, প্রতি পর্বেই নতুন নতুন গল্পের মজা পাবেন দর্শক। যদিও পরের পর্বে এর রেষ থাকবে তবু এমন না যে অতৃপ্তি নিয়ে পর্বগুলো শেষ হবে।’

সাম্প্রতিকবছরগুলোতে নাটকের পর্দায় তারুণ্যের জয়জয়কার। টয়াও সে তারুণ্যের প্রতিনিধি। বললেন, গত এক দু’বছর তরুনদের নিয়ে কাজ করতে আগ্রহী হচ্ছেন নির্মাতারা। তাই আমাদের প্রায়ই একসঙ্গে দেখা যাচ্ছে। এই সুপারগার্লসদের মধ্যে সাফার সঙ্গে আমার বেশ ভালো বন্ধুত্বও হয়ে গেছে কাজ করতে করতে। নাদিয়াকেও জানি লাক্সের কল্যানে। বাকিদের সঙ্গেও কাজ করতে করতে একটা সুপার বন্ডিং তৈরী হবে এমনটাই মনে করছি।’

2016_02_28_16_28_02_MUJi3oWyrrVFU1slZymnI7KMR5zBq4_original

কিন্তু জেনে রাখা ভালো, উচ্চতায় বলুন আর কাজের ক্ষেত্রেই বলুন, টয়া এখানে একটু সিনিয়র। তাই অন্য প্রসঙ্গেও যাওয়া। বিজ্ঞাপনে অনন্ত জলিলের সঙ্গে সব সম্ভব করেতো বিখ্যাত তিনি। নাটকেও নিয়মিত। কিন্তু সিনেমায় নেই। কেন?

2016_02_28_16_31_35_mBcyTiY1s1GBdbHotiVcCVgvWel5n5_original

টয়া খুব স্থীর, ধীরভঙ্গিতে কথা বলেন, সিদ্ধান্তেও দেখা গেলো তাই, ‘কমার্শিয়াল মুভিতে কাজ করবো না। প্রচুর অফার আসে কিন্তু আমি রাজি হচ্ছি না। যে ধরণের সিনেমায় কাজ করতে চাই তার জন্য নিজেকে আরো প্রস্তুত করতে হবে। ভালো ডিরেক্টরদের চোখে পড়তে হলে অন্তত অ্যাক্টিংটাতো ভালো করতে হবে।’

অভিনয়ের প্রতি, নিজের রুচির প্রতি দায়বদ্ধতার দৃষ্টান্ত স্বয়ং! এই না হলে সুপার গার্ল?






মন্তব্য চালু নেই