মেইন ম্যেনু

এই সময়ে ঠোঁটের যত্ন

প্রকৃতিতে চলছে পরিবর্তন। শরৎকে বিদায় জানিয়ে এখন আসন গেড়ে বসেছেন ঋতুর রাণী হেমন্ত। আর এই হেমন্তের হাত ধরেই আসি আসি করছে শীত। আমাদের ত্বকের সবচেয়ে সংবেদনশীল অংশের একটি হচ্ছে ঠোঁট। আবওহায়ার এই পরিবর্তনের প্রভাব পড়ে আমাদের ঠোঁটেও। এই সময়ে তাই ঠোঁটের বাড়তি যত্ন নিতে হবে। কিছু কাজ আছে যা আপনার ঠোঁটকে প্রাকৃতিকভাবেই রাখবে সুন্দর ও আকর্ষণীয়।

গ্লিসারিন : রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে তুলোর টুকরোতে গ্লিসারিন লাগিয়ে ঠোঁটে ম্যাসেজ করে নিন। গ্লিসারিন ঠোঁট ময়শ্চার রাখে এবং ঠোঁট হতে শুষ্কতা রোধ করে। কিছুদিন এই ভাবে গ্লিসারিন ব্যবহার করার পর দেখবেন ঠোঁটের কালো দাগ ধীরে ধীরে চলে যাবে।

লেবু ও মধু : কালো ঠোঁটের জন্য লেবু ও মধুর মিশ্রণ খুব উপকারী। মধুর সাথে লেবুর রস মিশিয়ে মিশ্রণটি ঠোঁট পরিষ্কার করে লাগিয়ে নিন। লেবুর ভিটামিন সি উপাদান ঠোঁটে পুষ্টি যোগায় এবং মধুর উপাদান ঠোঁটের রং গোলাপি করতে সাহায্য করে। মাঝে মাঝেই ঠোঁটের যত্নে এই উপায়টি পালন করতে পারেন।

শসার জুস : ঠোঁটের কালো ছাপ রোধ করতে শসার জুস খুব উপকারী। শসার উপাদান কালো ঠোঁটের সমস্যা সমাধানে খুব উপকারী। প্রতিদিন শসার জুস ঠোঁটে লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে ধুয়ে ফেলুন।

পানি : শুধু ওপর দিয়েই যত্ন নিলে হবে না। দেহের ভিতরে সব ঠিক থাকলে ওপর দিয়ে সব ঠিক থাকবে। তাই দেহকে সতেজ রাখতে প্রচুর পরিমাণে পানি পান করতে হবে। প্রতিদিন ৮/১০ গ্লাস পানি পান করুন। এতে করে দেহ থাকবে সতেজ ও দেহের অন্য অঙ্গের পাশাপাশি ঠোঁটও ভালো থাকবে।

আমন্ড অয়েল : প্রতি রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে ঠোঁটে আমন্ড অয়েল ম্যাসেজ করে ঘুমাতে যান। আমন্ড অয়েল ঠোঁট উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে।






মন্তব্য চালু নেই