মেইন ম্যেনু

একটি শিশুও ক্ষুধার্ত ও অশিক্ষিত থাকবে না : প্রধানমন্ত্রী

বিশ্ব শিশু দিবসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তিনি শিশুদের জন্য বৈষম্যহীন সমাজ ব্যবস্থা গড়ে তুলতে চান এবং শিশুদের সুন্দর ভবিষ্যৎ গড়ে তোলাই তার লক্ষ্য। তিনি বলেন, তার চাওয়া একটি শিশুও ক্ষুধার্ত ও অশিক্ষিত থাকবে না।

‘বিশ্ব শিশু দিবস ও শিশু অধিকার সপ্তাহ ২০১৬’ উপলক্ষে বাংলাদেশ শিশু একাডেমিতে এ আয়োজনে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীনতার পর শিশুদের অধিকার-উন্নয়নে গুরুত্ব দিয়ে ১৯৭৪ সালে বাংলাদেশে শিশু আইন প্রণয়ন করেন। যেখানে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ ১৯৮৯ সালে ‘শিশু অধিকার সনদ’ গ্রহণ করে। বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তুলে ধরেন তার সরকারের সময়ে শিশুদের উন্নয়নে বিভিন্ন পদক্ষেপ।

শিশুরাই ভবিষ্যত বাংলাদেশের কর্ণধার উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আজকের শিশুরাই আগামী দিনের নেতা হবে। আর শিশুদের পড়াশুনার পাশাপাশি শারীরিক এবং মানসিক বিকাশের জন্য খেলাধুলা করতে হবে। সেই নেতার সুষ্ঠু বিকাশের জন্য আমরা প্রতিটি স্কুলে স্টুডেন্ট কাউন্সিল গঠনেরও ব্যবস্থা নিয়েছি। শিশু নির্যাতন রোধ এবং শিশু নির্যাতনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আমরা জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছি। বাংলাদেশে এখন খাদ্যের কোনো অভাব নেই, তাই এখানে কোনো শিশু যেন না খেয়ে কষ্ট না পায়। যারা বিত্তবান আছেন আমি আশা করবো তারা তাদের আশেপাশের দরিদ্র শিশুটি কেমন আছে, সে পেট ভরে খেতে পারছে কিনা, সে পড়াশোনা করতে পারছে কিনা সেসব দিকে একটু নজর দিবেন।

পরে শিশুদের পরিবেশনায় অনুষ্ঠিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান দেখেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।






মন্তব্য চালু নেই