মেইন ম্যেনু

একা পেয়ে ১০ বছরের নাতনিকে ধর্ষণ করলেন ৫০ বছরের দাদা!

এম.এ আয়াত উল্যা, স্টাফ রিপোটার নোয়াখালী : নোয়াখালীর সদর উপজেলার নোয়ান্নই ইউনিয়নে মোস্তফা মিয়া (৫০) নামের এক দাদা কর্তৃক নাতনি (১০) কে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার পরে থেকে অভিযুক্ত মোস্তফা পলাতক রয়েছে।

সোমবার গোরাপুর গ্রামের আলী আকবর মাস্টার বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত মোস্তফা মিয়া ওই বাড়ীর মৃত হজু মিয়ার ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, একই বাড়ীর (সম্পর্কে দাদা) মোস্তফার ঘরে বসে টিভি দেখছিল ওই বাড়ীর বাসিন্দা ও রতনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী (১০)। ঘরের ভিতরে কেউ না থাকার সুযোগে ভিকটিমকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে মোস্তফা। এসময় ভিকটিমের আত্মচিৎকারে বাড়ীর লোকজন ছুঁটে আসলে মোস্তফা মিয়া (৫০) দৌঁড়ে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন রক্তাক্ত অবস্থায় ভিকটিমকে উদ্ধার করে নোয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।

নোয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী জানান, ভিকটিমের যৌনাঙ্গী দিয়ে প্রচুর পরিমানে রক্তক্ষরণ হচ্ছে। ভিকটিমের অবস্থা আশংকাজনক। ভিকটিমকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

সুধারাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল ও হাসপাতালে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত ধর্ষক মোস্তফাকে আটকের চেষ্টা চলছে।






মন্তব্য চালু নেই