মেইন ম্যেনু

এক যোদ্ধা পিতা ও তার শিশুপুত্রের গল্প

প্রতিটি যুদ্ধই যেন মৃত্যু আর ধ্বংসকে আলাদা করা যায় না। তবে কোনো কোনো সময় যুদ্ধে কেবল একটি মৃত্যুই অনেক বিধ্বংসী হয়ে দাঁড়াতে পারে।

যে কেউ যুদ্ধের এ ভয়াবহতা উপলব্ধি করতে সক্ষম। যুদ্ধের প্রত্যক্ষদর্শী হলে তো শিশু কিংবা বয়স্ক তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

ইয়েমেনের রক্তক্ষয়ী সংঘাতের সাক্ষী ছবির এই ছোট্ট শিশুটিও। হয়তো নিজের খেলার সাথীর কাছ থেকেই যুদ্ধে প্রিয় বাবাকে হারানোর ব্যথা সে উপলব্ধি করেছে।

তাই তো বাবার যুদ্ধে যাওয়ার পথ আটকে দাঁড়িয়েছে ছোট্ট শিশুটি। কারণ, কেবল একটা বুলেটই তো তার বাবা হারানোর দুঃস্বপ্ন ডেকে আনতে পারে। নাছোড়বান্দা শিশুটি তাই বাবার পথ ছাড়তে রাজি নয়।

শান্তিতে নোবেল বিজয়ী ইয়েমেনি নারী তায়াক্কুল কারমান তার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে ছবিটি দিয়ে বলেছেন, ‘এই ছবিটিই একটি বিশ্বযুদ্ধ থামিয়ে দেয়ার জন্য যথেষ্ট।’ ছবিটি রীতিমত ভাইরাল হয়ে গেছে সারাবিশ্বে।






মন্তব্য চালু নেই