মেইন ম্যেনু

এক রানীর আমলে-ই ১৫৫ জন আরব বাদশা

মাত্র ২৩ বছর বয়সে ব্রিটিশ সিংহাসনে আরোহন করেছিলেন রানী এলিজাবেথ দ্বিতীয়। ব্রিটিশ রাজতন্ত্রের উপনিবেশিক ও পরবর্তী আমলের একমাত্র সাক্ষী হয়ে আছেন তিনিই। দীর্ঘ ৬৩ বছর দেশ শাসনের রেকর্ড গড়েছেন ব্রিটেনের এই রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ। অবশ্য এর আগের রেকর্ডটি ছিল সাবেক রানী ভিক্টোরিয়ার। আর ভিক্টোরিয়ার সেই রেকর্ডকেও ছাড়িয়ে গেছেন তিনি।

রানীর ৮৯ বছরের জীবনে অনেক উত্থান পতনের সাক্ষী তিনি। এমনকি পারিবারিক বিপর্যয়গুলোও খুব সাবধানে এবং কঠোরভাবে সামলে নিয়েছেন তিনি। যে কারণে এখনও ব্রিটিশ রাজপরিবারের রানী এলিজাবেথের কথাই শেষ কথা। এই ৮৯ বছর বয়সে তিনি আরব বিশ্বের ১৫৫জন বাদশাকে ক্ষমতায় বসতে দেখেছেন। যে সময়টা রানী একাই ব্রিটেনকে শাসন করেছেন সে সময়ে ১৫৫ বাদশাহ আর প্রেসিডেন্ট আরব দেশগুলো শাসন করেছেন। পাশাপাশি এই বাদশাদের মধ্যে অধিকাংশই কোনো না কোনো সময়ে রানীর অনুকূল্য পাবার চেষ্টা করেছিলেন।

তার শাসনামলে সৌদি আরবে সাত বাদশাহ, কুয়েতে পাঁচ বাদশাহ, আমিরাতে দুই শাসক এবং ওমানে দুই সুলতান নিজ নিজ দেশ শাসন করেছেন। এছাড়া তার শাসনামলে কাতারে পাঁচ শাসক দেশ শাসন করেছেন। এই দীর্ঘ শাসন উপলক্ষ্যে সম্প্রতি রানী স্কটিশ সীমান্তবর্তী অঞ্চলে সকলের উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন। ওই ভাষণে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে নানান দেশের গুনী ব্যক্তিরা ছিলেন।

দেশটির লেবার পার্টি নেতা হ্যারিয়েট হারম্যান রানীর সম্পর্কে বলতে গিয়ে বলেন, ‘কোনো সন্দেহ নেই রানী বিশ্বব্যাপী কয়েক বিলিয়ন মানুষের ভালোবাসা পেয়েছেন।’ শুধু হ্যারিয়েটই নয় প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন তার বক্তব্যে রানী এলিজাবেথকে একজন সফল নেতা হিসেবে উল্লেখ করেন।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই