মেইন ম্যেনু

এক হিন্দু তরুণীর কঠিন প্রশ্নের উত্তর দিলেন ডা. জাকির নায়েক

ভারতের বিখ্যাত টিভি চ্যানেল পিসটিভি বাংলার নিয়মিত আয়োজন প্রশ্নত্তোর পর্বে বিশিষ্ট ইসলামিক পণ্ডিত ডাক্তার জাকির নায়েককে এক হিন্দু তরুণী কঠিন একটি প্রশ্ন করেন।

ওই হিন্দু তরুণী ডাক্তার জাকির নায়েককে বলেন, ‘বিভিন্ন জায়গায় দেখেছি, যখন কোন মুসলমান ও হিন্দু ধর্মের দুইজন ব্যক্তির দেখা হয়, তখন মুসলমান ব্যক্তি হিন্দু ব্যক্তিকে মুসলমানে পরিবর্তন করতে চায় কিন্তু হিন্দু ব্যক্তি কখনও মুসলমান ব্যক্তিকে পরিবর্তন করতে চায় না। তারা নিজ নিজ ধর্ম বিশ্বাস করেন, কিন্তু মুসলমানেরা কেন হিন্দুদের মুসলমান করতে চায়?

এই টুকু একটা মেয়ে এমন একটা সৃজনশীল প্রশ্ন করবে তা হয়তো কেউই ভাবে নি। তাই তো হিন্দু মেয়েটির ওই প্রশ্ন শুনে ডাক্তার জাকির নায়েকসহ উপস্থিত সবাই অবক হয়ে যায়।

অবশ্য জাকির নায়েকের উত্তর শুনে আপনিও অবাক হয়ে যাবেন। তিনি সেই তরুণীকে প্রশ্ন করেন, যখন ভার্সিটির একজন ছাত্রের সাথে স্কুলের একজন ছাত্রের দেখা হয়, তখন কে কাকে শিক্ষা দেন?

উত্তরে তরুণী বলেন, অবশ্যই ভার্সিটির ছাত্র স্কুলের ছাত্রটিকে শিক্ষা দিবে। তখন জাকির নায়েক বলেন, মুসলমান ব্যক্তিরা নিজেদের সেই ভার্সিটির ছাত্র মনে করেন। তাই তারা সকলকে বোঝানোর চেষ্টা করেন।

এখানে আসল কথা হচ্ছে, প্রতিটি ধর্মে একে-অপরকে সাহায্য করার কথা বলা হয়েছে। ইসলাম ধর্মে বলা হয়েছে, তুমি সকলকে আল্লাহ্‌র পথে ডাকো। তাই তারা সকলকে জান্নাতের অংশীদার করার জন্য এই পথের আহ্বান করে। তারা সকলকে তাদের ধর্মের সাথে লড়াই করার জন্য এসব বলেন না। তারা শুধু আল্লাহ্‌র আদেশে সকলকে সে পথে ডেকে আনার চেষ্টা করে।






মন্তব্য চালু নেই