মেইন ম্যেনু

‘এখনই মোস্তাফিজকে দেশে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে না’

ভারতের বিপক্ষে সিরিজ থেকেই উত্থান বাংলাদেশের বিস্ময়বালক মোস্তাফিজুর রহমানের। এরপর আর পেছন ফিরে তাকাতে হচ্ছে না তাকে। একের পর এক কীর্তি গড়ে যাচ্ছেন কাটার মাস্টার; কিন্তু তার এ কীর্তিতে প্রায়ই বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে ইনজুরি। কাউন্টি খেলতে ইংল্যান্ডে গিয়ে আবারও ইনজুরিতে পড়েছেন এ পেসার। তবে তা সত্ত্বেও এখনই তাকে দেশে আনার কথা ভাবছে না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। বাংলাদেশের তুলনায় সেখানে ভালো চিকিৎসার ব্যবস্থা থাকায় সুযোগটা নিতে চাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ম্যানেজার ও সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ সুজন।

সোমবার মিরপুর শের-ই বাংলা স্টেডিয়ামের বিসিবি কার্যালয়ে খালেদ মাহমুদ সুজন বলেন, ‘মোস্তাফিজকে দেশে আনার ব্যপারে কোন কথাই হয়নি। আজকে একটা স্পেশালিস্টকে দেখাবে মোস্তাফিজ। যেহেতু ইংল্যান্ডে আমাদের চেয়ে আরও ভালো চিকিৎসার ব্যবস্থা আছে, তাই আমরা এ সুযোগটা হাতছাড়া করবো না। ওর ইনজুরি কতটা আমরা জানি না। যদি বড় কোন ইনজুরিও হয়, তাহলে আমার মতে বোর্ডেরও উচিৎ ওখানে তাকে রেখে ইনজুরিটা একেবারে সারিয়ে আনা।’

তবে মোস্তাফিজ বড় কোন ইনজুরিতে পড়েননি- এমনটাই বিশ্বাস করেন সুজন। তাই তাকে দেশে ফিরিয়ে আনার কোন ভাবনাই নেই বলে জানালেন তিনি। ওয়ানডে ম্যাচে না খেলার কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘এমনও হতে পারে, ফিরে এসে দুই দিন পর খেলতে পারছে। এটা জানা যায়নি ইনজুরিটা কতটুকু, তবে ও হালকা একটা ব্যাথা অনুভব করছে সেটাই আমি জানি। এ জন্যই আসলে শেষ ম্যাচে খেলেনি। আমাদের ওভাবে প্রেসক্রিপশন করা আছে, যদি হালকা ব্যাথা থাকে তাহলে ওই ব্যাথা নিয়ে খেলবে না।’

আজ সোমবার মোস্তাফিজের একজন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দেখানোর কথা রয়েছে। সেখানে তার স্ক্যান অথবা এমআরআই করা হবে বলে জানান সুজন। এরপরই নিশ্চিত হতে পারবেন মোস্তাফিজের ইনজুরি সম্পর্কে। সেখানে তার ইনজুরির সমস্ত দায়-দায়িত্ব ক্লাব সাসেক্স নিবে বলেও জানান সুজন।

‘মোস্তাফিজের ইনজুরির সকল দায়িত্ব ক্লাবই নিবে। কারণ যেহেতু ও চুক্তিবদ্ধ খেলোয়াড়, ইনস্যুরেন্স তো থাকবেই। আর যদি নাও থাকে তাহলে বোর্ড থেকে ওকে সেরা চিকিৎসাটা দিয়ে আনার চেষ্টা করবো, যেহেতু ও ওখানে আছে।’

উল্লেখ্য, গত ২০ জুলাই কাউন্টিতে সাসেক্সের হয়ে তিনটি টি-টোয়েন্টি ও চারটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে ইংল্যান্ডে পৌঁছান মোস্তাফিজ। প্রথম দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার পর ওয়ানডে ম্যাচের আগে নেটে বল করতে গিয়ে ইনজুরিতে পড়েন তিনি। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, পুরনো ইনজুরিই নতুন করে বেড়েছে তার।






মন্তব্য চালু নেই