মেইন ম্যেনু

এখনো বাংলাদেশকে অনিরাপদ মনে করে অস্ট্রেলিয়া?

গত বছর অনেক নাটকের পর বাংলাদেশ সফর স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নেয় অস্ট্রেলিয়া। তাদের দাবি, ক্রিকেট খেলার জন্য নাকি নিরাপদ নয় বাংলাদেশ। এরপর অবশ্য পৃথিবীর সব ক্রিকেট খেলুড়ে দেশ ঢাকায় এসে মাসব্যাপী টুর্নামেন্ট খেলে গেছে। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার মন ভরেনি। এবার যখন তারা স্থগিত হওয়া সফর খেলার ঘোষণা দিল, তখনো সেই নিরাপত্তার কথা স্মরণ করলো!

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাহী জেমস সাদারল্যান্ড বলছেন, ‘তারা (বাংলাদেশ) জানে এবং বুঝত পারছে স্থগিত হওয়া সিরিজ খেলতে আমরা বদ্ধপরিকর। অবশ্যই নিরাপত্তা একটা ব্যাপার। ওই সফরে যাওয়ার আগে আমাদের প্রস্তুতির মধ্যে দিয়ে যেতে হবে। কিন্তু আমরা বাংলাদেশে যেয়ে খেলতে মুখিয়ে আছি।’

সাদারল্যান্ডের এই বিবৃতিই মূলত ধোঁয়াশার সৃষ্টি করছে। তিনি বলছেন, সফরের আগে প্রস্তুতির মধ্যে দিয়ে তারা আসবেন। ‘প্রস্তুতির মধ্যে দিয়ে আসা’ বলতে কী বোঝাতে চেয়েছেন- সেটা স্পষ্ট নয়। তার আগে বলেছেন, ‘অবশ্যই নিরাপত্তা একটা ব্যাপার’। তার মানে আকারে-ইঙ্গিতে আবার তিনি নিরাপত্তা নিশ্চিত করার কথা বলছেন? সিএ’র প্রধান নির্বাহীর বক্তব্য থেকে কিন্তু এই প্রশ্ন করাই যায়।

অথচ বিশ্বকাপের আগে এশিয়া কাপ কিংবা বিপিএলে কিংবা অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের সময় কোনো দল এভাবে শর্ত দিয়ে খেলতে আসেনি। শুধু অস্ট্রেলিয়াই বারবার এমন করছে!

বিসিবি বিষয়টি কীভাবে দেখছে, তা জানতে কয়েকজন কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। তবে তাৎক্ষণিকভাবে কেউই বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে চাননি।

এর আগে দুপুরে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার ওয়েব সাইটে এক প্রতিবেদনে বলা হয়, আগামী বছর জুলাই অথবা সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশ সফর করতে চায় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)।

২০০৬ সালে রিকি পন্টিংয়ের অস্ট্রেলিয়া দল বাংলাদেশ সফরে এসেছিল। সেই শেষবার দুটি দল একে অন্যের বিপক্ষে টেস্ট খেলেছে। দুই দেশের মধ্যে শেষ ওয়ানডে সিরিজ হয়েছে ২০০৮ ও ২০১১ সালে। তারপর থেকে দ্বিপাক্ষিক কোনও সিরিজ হয়নি।






মন্তব্য চালু নেই