মেইন ম্যেনু

এটিএম বুথে জাল নোট! কি করবেন?

ঈদ উপলক্ষে দেশজুড়ে সক্রিয় হয়ে উঠেছে জাল নোট চক্র। এ ব্যাপারে বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ একাধিক পদক্ষেপ নেয়া হলেও অভিযোগ রয়েছে বাণিজ্যিক ব্যাংকের এটিএম বুথেই জাল টাকা নিয়েও।

অবশ্য এর কোনো সুনির্দিষ্ট প্রমাণ এখনও পাওয়া যায়নি। কেননা, ব্যাংকগুলো গ্রাহকদের মাঝে নোট বিতরণে যথেষ্ট সতর্কতা অবলম্বন করে।

সবচেয়ে ভালো হবে জাল নোটের ব্যাপারে নিজে সচেতন থাকা। এ জন্য নিচের উপায়গুলো অনুসরণ করতে পারেন-

বুথ থেকে যথাসম্ভব কম টাকা উত্তোলন করুন। এটি জাল নোট পাওয়ার ঝুঁকি ও ক্ষতি দুটোই কমে।

আসল নোট চেনার উপায়গুলো জেনে রাখন। এজন্য এই লিংকে ক্লিক করুন-https://www.bb.org.bd/videogallery/fakenoteidentification.php

বুথ থেকে টাকা তোলার পর ঠিকভাবে চেক করে নিন। লেনদেন সম্পর্কিত স্লিপ সংগ্রহ করুন এবং সংরক্ষণ করুন।

বুথে জাল নোট পেলে ওই স্থান ত্যাগ করবেন না। এটিএম বুথে সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের নাম্বার দেয়া থাকে, তাতে দ্রুত ফোন করুন।

জাল নোটটি বুথের সিসিটিভি বরাবর ধরে রাখুন, যাতে ইস্যু নাম্বার এবং আপনাকে ভবিষ্যতে সনাক্ত করা যায়।

প্রয়োজনে এটিএম বুথ এড়িয়ে চলুন। কার্ড অথবা সরাসরি ব্যাংক থেকে টাকা তুলে লেনদেন করুন।

মনে রাখবেন, জাল নোট নিয়ে একবার বুথে ছেড়ে গেলে ব্যাংকের আর কিছু করার থাকবে না।

এ ব্যাপারে ইস্টার্ন ব্যাংকের কনজ্যুমার ব্যাংকিং বিভাগের প্রধান নাজনীন এ চৌধুরী বলেন, বুথে জাল নোট পেলে অবশ্যই সংশ্লিষ্ট ব্যাংককে অবহিত করতে হবে। কেউ যদি এমনটি না করে চলে যায়, তবে আমাদের কিছু করার থাকে না।






মন্তব্য চালু নেই