মেইন ম্যেনু

এবার অন্তঃসত্ত্বা মেয়েকে হত্যা করলেন মা

এবার পরিবারের অমতে বিয়ে করায় পাকিস্তানে আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা মেয়ের জিহ্বা কাটার পর হত্যা করলেন মা। শুক্রবার পাঞ্জাব প্রদেশে এ ঘটনা ঘটে।

লাহোর থেকে ৫০ কিলোমিটার দূরে গুজরানওয়ালা জেলার বুতরানওয়ালি গ্রামের বাসিন্দা মুকাদাস তিন বছর আগে পরিবারের অসম্মতিতে তৌফিক নামে স্থানীয় এক ব্যক্তিকে বিয়ে করে। এ ঘটনার পর পরিবারের সদস্যরা মুকাদাসের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে পরিবারের সদস্যরা।

পুলিশ সুপার নাদিম খোখার বলেন, সম্প্রতি মুকাদাসের মা আমনা মেয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানান তাকে ক্ষমা করে দেওয়া হয়েছে এবং বাসায় আসতে বলেন। শুক্রবার আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা মুকাদাস স্থানীয় একটি ক্লিনিকে গিয়েছিলেন। খবর পেয়ে আমনা মেয়েকে বাসায় নিয়ে আসেন। এসময় আমনা, তার স্বামী আরশাদ ও ছেলে আদিল মিলে মুকাদাসের ওপর নির্যাতন চালায়। পরে ধারালো ছুরি দিয়ে তার জিহ্বা কেটে দেওয়া হয়।

পুলিশের এই কর্মকর্তা জানান, এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ আরশাদকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহে পরিবারের অসম্মতিতে বিয়ে করায় জিনাত নামে এক তরুণীকে পুড়িয়ে হত্যা করেছিল তার মা। পাকিস্তানে ‘অনার কিলিং’ বা পরিবারের সম্মান রক্ষার জন্য প্রায় সন্তানকে হত্যার ঘটনা ঘটে।






মন্তব্য চালু নেই