মেইন ম্যেনু

এবার কর্মচারীকে পেটালো সেই ছাত্রলীগ নেতা

পটুয়াখালী: শিক্ষক ও পুলিশকে পিটিয়ে আহত এবং সাংবাদিককে প্রাণনাশের হুমকি দেয়া সেই ছাত্রলীগ নেতা আতিকুর রহমান পারভেজের দেখা গেল ভিন্নরূপ। তুচ্ছ ঘটনায় পটুয়াখালী জেলা পরিষদের হিসাব রক্ষক জয়দেব চন্দ্র বলকে (৪০) পিনমারা মেশিন (স্ট্যাপলার) আর পেপারওয়েট দিয়ে আঘাত করে আহত করেছেন। একই সঙ্গে তছনছ করেছেন অফিসের ফাইলপত্রও। গুরুত্বর আহত অবস্থায় জয়দেবকে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার বেলা ১১টায় পটুয়াখালী জেলা পরিষদ কার্যালয়ের হিসাব রক্ষকের কক্ষে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত পারভেজ নামের ওই নেতা নিজেকে দীর্ঘদিন ধরে পটুয়াখালী সরকারি কলেজ শাখার ছাত্রলীগ সভাপতি দাবি করে আসছেন। যদিও ওই কলেজে ছাত্রলীগের কোনো কমিটির অনুমোদন নেই।

আহত জয়দেব জানান, পটুয়াখালী সরকারি কলেজের ছাত্রলীগ নেতা পারভেজ একটি ঠিকাদারী কাজের বিল নেয়ার জন্য তার কক্ষে যান। তখন পারভেজ তড়িঘড়ি করে বিল তৈরি করে দেয়ার চাপ প্রয়োগ করেন। জয়দেব তার হাতের চলমান কাজ শেষ করে পারভেজের কাজ করে দেয়ার কথা জানান। কিন্তু এতে পারভেজ ক্ষুব্ধ হয়ে টেবিলের ওপর থাকা পিন মারা মেশিন (স্ট্যাপলার) দিয়ে জয়দেবের চোখে আর পেপারওয়েট দিয়ে মাথায় আঘাত করেন। একই সময় জয়দেবের টেবিলের ওপর থাকা ফাইলপত্র ছুঁড়ে ফেলে দেয়াসহ তছনছ করেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইসমাইল হোসেন বলেন, ‘প্রাথমিক ভাবে আমরা বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করেছি। আহত ব্যক্তি সুস্থ্য হলে থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া হবে।’

অভিযুক্ত আতিকুর রহমান পারভেজ বলেন, ‘একলাখ টাকার কাজের জন্য জয়দেব আমার কাছে শতকরা এক টাকা হারে কমিশন দাবি করেন। এ নিয়ে তার সাথে আমার কথা কাটাকাটি হয়।’

পটুয়াখালী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম তারিকুল ইসলাম বলেন, ‘ঘটনাটির মৌখিক অভিযোগ পেয়ে পারভেজকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান শুরু করা হয়েছে।’

উল্লেখ, পটুয়াখালী সরকারি কলেজ শাখার ছাত্রলীগ সভাপতি দাবি করা আতিকুর রহমান পারভেজের বিরুদ্ধে শিক্ষক পেটানো, পুলিশ পেটানো, সাংবাদিকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়াসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই