মেইন ম্যেনু

এবার কাঁঠালের বিচি দিয়ে চকলেট!

চকলেট খেতে কে না ভালোবাসে? আমরা সবাই জানি চকলেট তৈরি হয় কোকো বিন থেকে। এটা এক ধরণের বীজ। কিন্তু কোকো বিন সব জায়গায় পাওয়া যায় না। দিন দিন বেড়ে চলা চকলেটের চাহিদা মেটাতে বিজ্ঞানীরা তাই বের করেছে বিকল্প পদ্ধতি। আর সে বিকল্প পদ্ধতির মূল উপাদান হলো কাঁঠালের বিচি। তাঁরা বলছেন, চকলেট তৈরিতে কোকো বিনের বদলে কাঁঠালের বিচি ব্যবহার করা যেতে পারে।

‘এগ্রিকালচারাল অ্যান্ড ফুড কেমিস্ট্রি’ নামের এক সাময়িকীতে গবেষণাসংক্রান্ত নিবন্ধটি প্রকাশিত হয়েছে।

পরিচিত কাঁঠালের বিচির নানা পুষ্টিগুণের কথা নিশ্চয়ই আপনারা জানেন। এটি বিপাকক্রিয়া ত্বরান্বিত করে। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। হজমশক্তি বাড়ায়। কিন্তু এবারে কাঁঠালের বিচির আরেকটি গুণের সন্ধান পেয়েছেন গবেষকেরা। শুনে অবাক হচ্ছেন। তবে বিজ্ঞানীরা বলছেন, এই কাঁঠালের বিচিতে চকলেটের সুগন্ধ রয়েছে। এটি সহজলভ্য ও তুলনামূলকভাবে সস্তা। এমনকি স্বাদও কোকো বিনের মতোই।

ব্রাজিলের সাও পাওলো বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা জানান, সারা বিশ্বে প্রতি বছর ৩৭ লক্ষ টন চকোলেট উত্পন্ন হয়। এ উত্পাদন আগামী এক দশকের মধ্যে বাড়ার কোনও সম্ভাবনা নেই। কিন্তু ২০২০ সালের মধ্যে কোকো বিনসের বার্ষিক চাহিদা পৌছে যাবে ৪৫ লক্ষ টনে। ফলে বেশ কিছু দিন ধরেই কোকো বিনসের বিকল্প খুঁজছিলেন গবেষকরা।

গবেষণার জন্য তারা ২৭টি বিভিন্ন প্রজাতির কাঁঠাল বিচির গুড়া রোস্ট করেন। বিভিন্ন তাপমাত্রায় কাঁঠাল বিচির গন্ধ পরীক্ষা করা দেখা হয়। ক্রোমাটোগ্রাফি-মাস স্পেকট্রোমেট্রি পদ্ধতির সাহায্যে বিজ্ঞানীরা দেখেন, কাঁঠালের মধ্যে থাকা বেশ কিছু যৌগের কারণে চকলেটের মতো সুগন্ধ বেরোয়।

এরপর গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের কয়েক জনকে কাঁঠাল বিচির গুড়ার গন্ধ বর্ণনা করতে বলা হয়। কোনও গুড়ার মধ্যে ক্যারামেল, কোনওটায় হেজেলনাট বা ফলের সুগন্ধ পেয়েছেন অংশগ্রহণকারীরা। ফলে চকলেট প্রস্তুত করার কাজে কাঁঠাল বিচিকে বিকল্প হিসেবে ভাবতে শুরু করেছেন গবেষকরা।






মন্তব্য চালু নেই