মেইন ম্যেনু

এবার কিশোরগঞ্জে মন্দিরের সেবায়েতকে হত্যার চেষ্টা

কিশোরগঞ্জ শহরের নগুয়া এলাকার বিবেকানন্দ পাঠাগার ও মন্দিরের সেবায়েতের ওপর হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। মুখোশধারী দুর্বৃত্তরা পুলক চক্রবর্তি নামে ওই পুরোহিতকে বাসা থেকে তুলে নিয়ে হত্যার চেষ্টা করে। তবে প্রাণে বেঁচে গেছেন তিনি।

শুক্রবার মধ্যরাতে শহরের নগুয়া পাঠাগারমোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এর আগে সাতক্ষীরা সদরের ব্রহ্মরাজপুর রাধাগোবিন্দ মন্দিরের পুরোহিত ভবসিন্দু বরকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায় দুর্বৃত্তরা।

জানা গেছে, শহরের নগুয়া মোড়ে অবস্থিত বিবেকানন্দ পাঠাগার ও মন্দিরের সেবায়েত পুলক চক্রবর্তি মন্দিরের পাশ্ববর্তী একটি বাড়িতে পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস করেন। শুক্রবার রাত ১২ টার দিকে বাড়ির দেয়াল টপকে দুর্বৃত্তরা ভেতরে প্রবেশ করে। দরজায় নক করার পর সেবায়েত বসতঘরের দরজা খোলেন।

সঙ্গে সঙ্গে চাপাতি হাতে থাকা মুখোশধারী ওই দুর্বৃত্ত সেবায়েত পুলক চক্রবর্তির ওপর হামলা চালায়। ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে দেয়াল টপকে পালিয়ে যায় ওই দুর্বৃত্ত। এতে সেবায়েত পুলক ডান হাতে আঘাত পেয়েছেন।

খবর পেয়ে শনিবার সকালে কিশোরগঞ্জের জেলা প্রশাসক আজিমুদ্দীন বিশ্বাস, পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন খান, জেলা পরিষদের প্রশাসক মো. জিল্লুর রহমানসহ সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তরা ঘটনাস্থলে গিয়েছেন।

বিবেকানন্দ পাঠাগার ও মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি অ্যাড. বিজয় শংকর রায় বলেন, সেবায়েতকে হত্যার জন্যই ঘাতকরা হামলা চালিয়েছিল। সেবায়েতের সাহসিকতায় তারা পিছু হটে। হামলার সময় একজন দেয়াল টপকে বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করে। বাকি কয়েকজন বাড়ির গেটের সামনে দাঁড়িয়েছিল।

কিশোরগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর মোশাররফ হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনার পর পুরোহিত পুলক চক্রবর্তির বাসায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই