মেইন ম্যেনু

এবার গেইলের অশালীন আক্রমণ!

টি-২০ ক্রিকেট মানেই উত্তেজনা। এই উত্তেজনা ছড়িয়ে দিতে ক্রিস গেইলের জুড়ি নেই। বিশ্বের প্রত্যেকটি ঘরোয়া লিগের সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে গেইলের আধিপত্য চোখে পড়ার মতোই। মাঠের উত্তেজনার পাশাপাশি বাইরেও উত্তেজনা ছড়াতে বেশ পারঙ্গম গেইল, সেটা অজানা নয়।

আবার এটাও অজানাও নয় যে গেইলের নারীপ্রীতি বেশ পুরানো। তাই বলে সরাসরি সম্প্রচারের সময় টিভি সাংবাদিক মেল ম্যাকলাফলিনকে ডেটিংয়ে প্রস্তাব দেবেন? এমনটা হয়তো কামনা ছিল না কারোরই। এজন্য গেইল ক্ষমা চেয়েছিলেন। তাকে গুনতে হয়েছিল ১০ হাজার অস্ট্রেলিয়ান ডলার জরিমানাও।

এ শাস্তিও নাকি গেইলের জন্য খুব কম হয়েছে বলে মন্তব্য করেছিলেন ইয়ান চ্যাপেল। গেইলকে বিশ্বজুড়ে নিষিদ্ধ করার দাবি তুলেছিলেন অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তি। বলেছিলেন, ‘আমরা গেইলকে বিগ ব্যাশে নিষিদ্ধ করছি। আর আমরা যেটা করছি সেটা বিশ্বব্যাপী করা উচিত।’
এর প্রতিক্রিয়া গেইল দেখিয়েছেন সোমবার। টুইটারে বিগ ব্যাশকে ‘না’ বলে দিয়েছেন তিনি। দিন পার হাতেই চ্যাপেলকে একহাত নিলেন গেইল! যদিও কোনো নির্দিষ্ট ব্যক্তির নাম উল্লেখ করেননি ক্যারিবীয়ান এই তারকা।
তবে খোঁচাটা যে চ্যাপেলকে উদ্দেশ্য করে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। টুইটারে গেইল লিখেছেন, ‘যে সব সাবেক ক্রিকেটাররা বলছে আমার ব্যবহার ঠিক নয়। এটা তরুণদের উপর খারাপ প্রভাব ফেলবে। তাদের উদ্দেশ্যে বলছি, এসব বললে আমার কিছু যায়-আসে না। এসে আমার কালো….-তে চুমু খেয়ে যাও।’

বিতর্কের সময় পাশে না পাওয়ায় গেইলের তোপ ছিল বর্তমানদের দিকেও। তিনি টুইট করেন, ‘যারা আমাকে ঘৃণা করেন, তাদের তো আরো বেশি করে ধন্যবাদ দেব। সাবেক আর বর্তমান অনেক ক্রিকেটার যারা সামনে হাসি মুখে থাকে, তারা ওই বিতর্কের সময় আমার পাশে দাঁড়াতে পারত। কিন্তু যখন প্রয়োজন ছিল, তাদের সেই সাহসটা কোথায় গেল? জানি এরপর যখন আমার সঙ্গে দেখা হবে তারাই বলবে, তোমার সঙ্গে যা হয়েছে সেটার কোনো মানেই হয় না!’






মন্তব্য চালু নেই