মেইন ম্যেনু

এবার টয়লেটের মধ্যে পাওয়া গেল নবজাতকের মাথা!

মিরপুরের মধ্য মণিপুর এলাকায় এক নবজাতকের মাথা উদ্ধার করেছে পুলিশ। পরে তা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মঙ্গলবার বেলা দুইটার দিকে মধ্য মণিপুরের খলিল মিয়ার বস্তির এক টয়লেট থেকে মাথাটি উদ্ধার করা হয়।

মিরপুর মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আব্দুল হালিম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ মণিপুরের খলিল মিয়ার বস্তি থেকে নবজাতকের মাথাটি উদ্ধার করে। শিশুটি সোনিয়া (১৮) নামের এক পোশাকশ্রমিকের সন্তান। সে ওই বস্তিতে তার বোনের সঙ্গে ভাড়া থাকে। সোনিয়াকে আটক করেছে পুলিশ।

সোনিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদের সূত্রে পুলিশ জানায়, জামাল নামের এক যুবকের সঙ্গে সোনিয়ার সম্পর্ক ছিল। ওই সম্পর্কের জেরে নবজাতকের জন্ম। সোমবার রাতে নবজাতকটি ভূমিষ্ঠ হয়।

সোনিয়ার দাবি, প্রসবের সময় নবজাতকের মাথা বের হয়ে আসে। দেহের বিষয়ে সে কিছু জানে না।

এর আগে গতকাল সোমবার বেইলি রোডের ছয় তলা একটি ভবন থেকে নিজের সদ্যভূমিষ্ঠ সন্তানকে নিচে ফেলে দেন বিউটি আক্তার (১৬) নামের এক কিশোরী। তার দাবি, বোনের বাড়িতে বেড়াতে গেলে সে দুলাভাইয়ের ধর্ষণের শিকার হয়। তার ফল এই শিশু।






মন্তব্য চালু নেই