মেইন ম্যেনু

এবার ড্যারেন স্যামির নামে স্টেডিয়াম

বিশ্বের একমাত্র অধিনায়ক হিসেবে দুটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা জিতেছেন ড্যারেন স্যামি। কিন্তু বিনিময়ে কি পেয়েছেন ক্যারিবীয় এই দলপতি? ভারতের অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ের পর ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের প্রতি ক্ষোভ ঝেড়েছেন তিনি।

টি-টোয়েন্টিতে ষষ্ঠ আসরে শিরোপা জয়ের পর ক্রিকেটারদের প্রতি নিজ বোর্ডের অবহেলা নিয়ে হৃদয়বিদারক এক বক্তব্য দিয়েছেন স্যামি। আর তার সেই বক্তব্যেই বোধহয় এবার মন গলেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রধানমন্ত্রীসহ দেশটির ক্রিকেট বোর্ডের।

খেলোয়াড়দের প্রতি ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের (ডব্লিউআইসিবি) অবহেলা দীর্ঘদিন ধরেই অবলোকন করছে ক্রিকেট বিশ্ব। দ্বিতীয়বার টি-টোয়েটি শিরোপা জয়ের পর ক্রিকেটারদের দাবি-দাওয়া পূরণে মনযোগী হতে ডব্লিউআইসিবি’কে পরামর্শ দিয়েছেন ক্রিকেট গ্রেট শচীন টেন্ডুলকারও।

তবে এবার আর অবহেলা নয়। দেশকে দ্বিতীয়বার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ে নেতৃত্ব দেওয়ায় ড্যারেন স্যামিকে বেশ ভালোভাবেই সম্মানিত করতে যাচ্ছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সেন্ট লুসিয়ার বিউসিজুর ক্রিকেট গ্রাউন্ডের নাম হতে যাচ্ছে “ড্যারেন স্যামি ন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়াম“। সেন্ট লুসিয়ায় স্যামিদের অর্ভ্যথনা অনুষ্ঠানে ক্যারিবীয় প্রধানমন্ত্রী ক্যানি ডি অ্যান্থনি এই ঘোষণা দেন। এই স্টেডিয়ামের একটি স্ট্যান্ড ক্যারিবীয় ক্রিকেটার চার্লসের নামে হবে।

প্রধানমন্ত্রীর এমন ঘোষণার পর আনন্দ প্রকাশ করে স্যামি বলেন, ‘আমি সত্যিই সম্মানিত বোধ করছি। সেন্ট লুসিয়ার মানুষের ভালবাসা, শ্রদ্ধা এবং এমন ঘোষণা পেয়ে আমি সত্যিই অভিভূত। আমি তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজ নারী ও ক্রিকেট বোর্ড একই দিনে বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ের ফলে তাদের অভিনন্দন জানিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড। তাদের অভিনন্দন জানিয়ে এক বিবৃতিতে ডব্লিউআইসিবি জানায়, ‘কঠিন পরিশ্রম এবং ত্যাগের মাধ্যমেই দুটি দল দেশের জন্য সম্মান বয়ে এনেছে। ২০১৬ সালের বিশ্বকাপকে তারা স্মরণীয় করেছেন। আমরা খেলোয়াড়দের স্যালুট জানাই।’






মন্তব্য চালু নেই