মেইন ম্যেনু

এবার পাকিস্তানের হুংকার

ভারতের সেনাপ্রধানের পর এবার পাকিস্তানের সেনাপ্রধান হুংকার দিলেন। জানিয়ে দিলেন, ছোট হোক আর বড় হোক বহিঃশত্রুর সঙ্গে যেকোনো ধরনের যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত আছে তার বাহিনী।

সম্প্রতি ভারতের সেনাপ্রধান জেনারেল দলবির সিং সুহাগ পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ‘ছোট যুদ্ধের’ জন্য সেনাবাহিনীকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দেন। মূলত এর প্রতিক্রিয়ায় পাকিস্তানি সেনাপ্রধান জেনারেল রাহিল শরিফ রোববার বলেন, যেকোনো বিদেশি আগ্রাসনের জবাব দিতে প্রস্তুত সেনাবাহিনী।

১৯৬৫ সালে ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধের ৫০ বছরপূর্তি উপলক্ষে সেনাপ্রধানের সদর দপ্তরে রোববার আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে জেনারেল শরিফ বলেন, ‘শত্রুপক্ষ যদি কোনো প্রকার দুর্ঘটনার জন্ম দেয়, তার আকার ও মাত্রা যা-ই হোক, হোক সে স্বল্প বা দীর্ঘমেয়াদি- সেজন্য তাকে (শত্রুপক্ষ) অপূরণীয় মূল্য দিতে হবে।’

জেনারেল শরিফ তার ভাষণে পাকিস্তানের সন্ত্রাসবাদ থেকে শুরু করে আফগানিস্তানে শান্তি প্রক্রিয়া ও চীন-পাকিস্তানের মধ্যে অর্থনৈতিক বন্ধুত্বের প্রসঙ্গে কথা বলেন। তবে তার বক্তব্যের মূল বিষয় ছিল ভারতের যুদ্ধের হুমকি।

ভারত-পাকিস্তান সীমান্তে একের পর এক যুদ্ধবিরতির চুক্তি ভঙ্গ করে পাকিস্তান হামলা চালাচ্ছে উল্লেখ করে ভারতের সেনাপ্রধান জেনারেল দলবির সিং সুহাগ বলেন, ‘ভবিষ্যতে তাৎক্ষণিক, ছোট ধরনের’ যুদ্ধের জন্য সেনাবাহিনীকে প্রস্তুত থাকতে হবে।

তবে পাকিস্তানও ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধবিরতির চুক্তি ভঙ্গের অভিযোগ এনেছে। দুই দেশ তাদের জন্মলগ্ন থেকেই একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ-পাল্টা অভিযোগ করে আসছে।

পাকিস্তানের অভিযোগ, যুদ্ধবিরতির চুক্তি ভঙ্গ করে আন্তর্জাতিক সীমান্ত ‘লাইন অব কন্ট্রোলে’ হামলা চালিয়ে গত তিন মাসে ভারতের সেনারা ২০ পাকিস্তানিকে হত্যা করেছে।






মন্তব্য চালু নেই