মেইন ম্যেনু

এবার ভূত-পরী তাড়াতে ব্যস্ত পুলিশ!

ভূত-পরী নিয়ে যত ভয়। ভয়ে পুলিশ দপ্তরে বারবার কমপ্লেন। এ পর্যন্ত ৫৭টি কমপ্লেন এসেছে অতিলৌকিক বিষয়ে। এ নিয়ে ব্যতিব্যস্ত সেখানকার পুলিশ। নর্থ ওয়েলস পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গত ৫ বছরে তাদের কাছে ৫৭টি কমপ্লেন এসেছে। তারা হিসাব করে দেখিয়ে দিয়েছেন, ২০১০ থেকে ২০১৫-এর মধ্যে ২২বার এলিয়েন, ২১বার ভূত, ১০বার ডাইনির বিষয়ে অভিযোগ এসেছে।

সেই স্থান একেবারেই ভার্চুয়াল। লামডিংয়ের বাসিন্দারা আশ্চর্য মানুষ। তাদের শহরে নাকি থিক থিক করছে ভূত। প্রতি রাতেই লামডিংয়ের বনে-জঙ্গলে নেমে আসে পরীর দল।

কখনো কখনো নামে অদ্ভুতদর্শন মহাকাশযান। তা থেকে বেরিয়ে আসে দুশমন প্যাটার্নের এলিয়েনের দল। অবশ্য জায়গাটির সঙ্গে বাস্তবের লামডিংয়ের কোনো সম্পর্ক নেই। কিন্তু সম্প্রতি লামডিংয়ের এক লুক-অ্যালাইকের সন্ধান পাওয়া গেল। সেই জায়গা ব্রিটেনের নর্থ ওয়েলস।

নর্থ ওয়েলস পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গত ৫ বছরে এ বিষয়ে তাদের কাছে ৫৭টি কমপ্লেন এসেছে। এর বাইরে ২ বার জোম্বি ও ২ বার ভ্যাম্পায়ার নিয়েও সমস্যা দেখা দিয়েছিল বলে জানিয়েছেন পুলিশ কর্মকর্তারা। ৫৭টি অভিযোগের ৩৮টিতে পুলিশ সশরীরে উপস্থিত হয়।

তারা অবশ্য সেই সব জায়গায় পৌঁছেছিলেন গণ-নিরাপত্তার কারণে। এসব অভিযোগ নিয়ে সরব হয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

সেখানকার ট্যাক্স পেয়ারস অ্যাসোসিয়েশনের পলিটিক্যাল ডিরেক্টর দিয়া চক্রবর্তীর বক্তব্য, করের টাকার অপচয় রোধ করাটা নাগরিকেই দায়িত্ব। এ ধরনের অভিযোগ তুলে পুলিশকে ব্যতিব্যস্ত করা মানে নিজের অর্থের প্রতিই অবিচার করা।






মন্তব্য চালু নেই