মেইন ম্যেনু

এরদোগানকে হত্যায় সেনাদের বোমা হামলা!

তুরস্কে শুক্রবার রাতে সেনা অভ্যুত্থানের চেষ্টাকালে প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগান দেশের দক্ষিণাঞ্চলে পর্যটন স্থান মারমারিসে অবস্থান করছিলেন। সেখানে তাকে হত্যার জন্য সেনারা বোমা ফেলে বলে দাবি করেছেন তিনি।

অভ্যুত্থানের খবর জানার পরপরই মারমারিস থেকে ইস্তাম্বুল রওনা দেন এরদোগান। শনিবার সকালে ইস্তাম্বুলে কামাল আতাতুর্ক বিমানবন্দর থেকে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন তিনি।

ভাষণের এক পর্যায়ে এরদোগান বলেন, ‘আমি মারমারিস থেকে চলে আসার কিছুক্ষণ পরই তারা (বিদ্রোহী সেনারা) সেখানে বোমা হামলা চালায়। আমার মনে হয়, বোমা ফেলার সময় তারা মনে করেছিল, আমি সেখানে অবস্থান করছি। তারা আমাকে হত্যা করতে চেয়েছিল।’

এরদোগান সেনা অভ্যুত্থান চেষ্টাকারীদের ‘ষড়যন্ত্রকারী ও বিশ্বাসঘাতক’ আখ্যা দিয়ে তাদেরকে ‘চড়া মূল্য দিতে হবে’ বলে হুঁশিয়ার উচ্চারণ করেন।

তিনি বলেন, ‘বিশ্বাসঘাতকদের চক্রান্ত ব্যর্থ হয়েছে। দেশের ৫২ শতাংশ জনগণ যাকে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত করেছিল, তিনি দায়িত্বে আছেন। জনগণের দ্বারা নির্বাচিত সরকার দায়িত্বে আছে। আমরা যতক্ষণ সবকিছু বিসর্জন দিয়ে তাদের বিরুদ্ধে একতাবদ্ধ হয়ে দাঁড়াব, ততক্ষণ তারা সফল হতে পারবে না।’

তথ্যসূত্র : আলজাজিরা।






মন্তব্য চালু নেই