মেইন ম্যেনু

এরশাদের নিঃসঙ্গতার হাহাকার

দলে নিজেকে নিঃসঙ্গ বলে বর্ণনা করেছেন জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তিনি বলেছেন, সারা দেশে তিনি একাই কাউন্সিল করছেন। কেউ তার পাশে নেই।

একই সঙ্গে এরশাদ আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন দেয়ার জন্য প্রার্থী খুঁজে না পাওয়াকে লজ্জার বলে মন্তব্য করেছেন।

রবিবার ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে জাতীয় পার্টির ‘সংবিধান সংরক্ষণ’ দিবসের আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে এ মন্তব্য করেন নব্বইয়ে ক্ষমতাচ্যুত এই রাষ্ট্রপতি।

১৯৯০ সালে বিএনপি-আওয়ামী লীগসহ সব রাজনৈতিক দল, পেশাজীবী সংগঠন, ছাত্র-জনতার আন্দোলনের মুখে পদত্যাগ করেন ‘স্বৈরাচার’ বলে আখ্যা পাওয়া এরশাদ। দিনটিকে রাজনৈতিক দলগুলো ‘স্বৈরাচার পতন দিবস’ বা গণতন্ত্রের মুক্তি দিবস হিসেবে পালন করে। তবে এরশাদের জাতীয় পার্টি দিনটিকে পালন করে ‘সংবিধান সংরক্ষণ’ দিবস হিসেবে।

পৌর নির্বাচনে প্রার্থী না পাওয়ার ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে এরশাদ বলেন, “একটি পুরাতন দল হয়েও আমরা প্রার্থী খুঁজে পাই না। মাত্র ৫১টি পৌরসভায় প্রার্থী মনোনয়ন দেয়া আমাদের জন্য লজ্জার।”

দলের নেতারা তাকে সহযোগিতার করছেন না এমন অভিযোগ করে এরশাদ বলেন, “আমি একাই ২৭টি জেলায় কাউন্সিল করেছি। আমার পাশে কেউ ছিল না। আরও ২৬টি জেলায় কাউন্সিল করব। জানি আমার পাশে কেউ থাকবে না।”

আসন্ন পৌরসভা নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য সরকারের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর এই বিশেষ দূত বলেন, “পৌরসভার সব কয়টিতে হারলেও আপনাদের ক্ষমতা চলে যাবে না। তাই সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন।”

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সমালোচনা করে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, নির্বাচন কমিশন তাদের মেরুদণ্ড খুঁজতে ডাক্তারের কাছে গিয়েছিল। কিন্তু তারা মেরুদণ্ড খুঁজে পায়নি। সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে ইসিকে তাদের নিরপেক্ষতা প্রমাণ করতে হবে।






মন্তব্য চালু নেই