মেইন ম্যেনু

এলিয়েন খুজতেই ব্যাস্ত চীন, তাই তৈরি করলো বিশ্বের বৃহত্তম রেডিও টেলিস্কোপ

আমাদের পৃথিবীর পর এবার মানুষ মহাকাশে বিভিন্ন জিনিস খুঁজতেই আছে। আর তার মাঝে এলিয়েন বা ভিনগ্রহের প্রাণি অন্যতম। আর এই এলিয়েন খঁজতে ব্যস্ত হয়েছে চীন। আর তাই তারা বিশ্বের বৃহত্তম রেডিও টেলিস্কোপ স্থাপনের কাজ শেষ করতে যাচ্ছে।

সত্যিকার অর্থেই ভিনগ্রহে কোনো প্রাণি আছে কি না- তা শনাক্ত করতে চলতি বছরের শেষের দিকে বিশ্বের বৃহত্তম রেডিও টেলিস্কোপ স্থাপনের কাজ শেষ করতে যাচ্ছে দেশটি।

আর এ কারণেই যেখানে টেলিস্কোপটি স্থাপন করা হবে সেখান থেকে সরিয়ে নয় হাজার লোককে সরিয়ে নিয়ে অন্যত্র বাসস্থানের ব্যবস্থা করা হবে।১২৭ মিলিয়ন পাউন্ড ব্যয়ে চীনের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ গুইঝুতে কাজ চলছে টেলিস্কোপটি স্থাপনের। ২০১১ সালে ওই প্রকল্পটির কাজ শুরু হয়। আশা করা হচ্ছে চলতি বছরের সেপ্টেম্বর নাগাদ শেষ হবে কাজটি।

আর তার আগেই গুইঝুর পিংটাং এবং লুদিয়ান শহরের নিজেদের বাড়ি থেকে নয় হাজার ১১০ জন বাসিন্দাকে সরিয়ে নেয়া হবে জানিয়েছে চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম সিনহুয়া। ক্ষতিপূরণ বাবদ সরকারের পক্ষ থেকে এদের প্রত্যেককে দেয়া হবে ১২ হাজার ২৭৫ পাউন্ড, যা বাংলাদেশি মুদ্রার হিসেবে প্রায় ১ লাখ ৪৫ হাজার টাকা।

বেইজিং জানিয়েছে, টেলিস্কোপটি হবে ৫০০ মিটার ব্যাস বিশিষ্ট একটি টেলিস্কোপ। এটি হবে ক্যারিবীয় দ্বীপে যুক্তরাজ্যের ভূখণ্ড পুর্তো রিকোতে স্থাপিত ৩০০ মিটার ব্যাসের টেলিস্কোপটি থেকেও ২০০ মিটার বড়।

তাছাড়া, প্রকল্পটির সাথে জড়িত এক বিজ্ঞানী জানিয়েছেন, টেলিস্কোপটিকে যদি ওয়াইন দ্বারা পরিপূর্ণ করা হয়, তবে বিশ্বের ৭০০ কোটি মানুষের সবাই পাঁচ বোতল করে নিতে পারবে।






মন্তব্য চালু নেই