মেইন ম্যেনু

এসপি বাবুল পুরনো কর্মস্থলেই ফিরছেন!

পুলিশ সুপার (এসপি) পদে পদোন্নতি পেয়ে ঢাকা পুলিশ সদর দপ্তরে যোগদার করলেও স্ত্রী হত্যাকান্ডে বিপর্যস্ত বাবুল আক্তার আবার পুরনো কর্মস্থল চট্টগ্রামেই ফিরে আসছেন।

ঢাকায় পুলিশ সদর দপ্তরে পুলিশ সুপার পদে যোগদান করতে যাওয়ার তিন দিনের মধ্যেই চট্টগ্রামের জিইসি মোড়স্থ নিজ বাসার কাছেই খুন হন বাবুল আক্তারের স্ত্রী, দুই সন্তানের জননী মাহমুদা খানম মিতু। এই হত্যাকান্ড নিয়ে সারাদেশেই তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

হত্যাকান্ডের প্রায় এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও পুলিশ হত্যাকারীদের কাউকে চিহ্নিত কিংবা গ্রেফতার করতে পারেনি। এ অবস্থায় স্ত্রীর ঘাতকদের গ্রেফতারে সহযোগিতা করার সুবিধার্থে বাবুল আক্তারকে পুনরায় চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশে (সিএমপি) পদায়ন করা হচ্ছে বলে পুলিশ সদর দপ্তরের একাধিক নির্ভরযোগ্য সূত্র নিশ্চিত করেছে।

এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের সম্মতিও গ্রহন করেছেন উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। আগামীকাল রোববার অথবা সোমবার বাবুল আক্তারের সিএমপিতে ডেপুটি কমিশনার (ডিসি) পদে পদায়নের আদেশ হতে পারে।

পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতি পেয়ে গত সপ্তাহে ঢাকায় পুলিশ সদর দপ্তরে যোগ দেওয়ার আগে চট্টগ্রাম নগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) পদে দায়িত্ব পালন করেন বাবুল আক্তার। তিনি সিএমপি উত্তর-দক্ষিণ জোনের দায়িত্বে ছিলেন।

এই পদে দায়িত্ব পালনকালেই জঙ্গি, সোনা চোরাচালান, ইয়াবাবিরোধী একাধিক অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়ার পাশাপাশি বেশ কয়েকটি ক্লু বিহীন হত্যারহস্য উম্মোচন করেন। গ্রেফতার করেন খুনি অপরাধীদের।

এ ছাড়া বাবুল আক্তার স্বশরীরে অভিযান পরিচালনা করে গ্রেনেড হামলা মোকাবেলা করে গ্রেফতার করেন একাধিক জঙ্গী সদস্য এবং উদ্ধার করেন গ্রেডেডসহ অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্র। ধারণা করা হচ্ছে এসব কারনে জঙ্গী ও অপরাধীদের টার্গেট ছিলেন বাবুল আক্তার ও তার পরিবার।

গত রোববার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতুকে প্রকাশ্যে রাস্তায় ছুরিকাঘাত ও গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এই হত্যাকান্ডের সঙ্গে জঙ্গী গোষ্ঠীই জড়িত বলে পুলিশ মনে করছে।

গত এক সপ্তাহে খুনিরা গ্রেফতার না হওয়ায় স্ত্রীর খুনিদের গ্রেফতার করতে তদন্তকারী সংস্থাকে সরাসরি সহায়তা দিতে বাবুল আক্তারকে পুনরায় চট্টগ্রামে পদায়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুলিশ সদরদপ্তর।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের একজন উর্ধ্বতন কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন বাবুল আক্তারকে পুনরায় চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশে পদায়নের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে বাবুল আক্তারের সম্মতি চাইলে তিনিও সম্মত হয়েছেন।






মন্তব্য চালু নেই