মেইন ম্যেনু

এ দশকে তোলা প্লুটোর সবচেয়ে পরিষ্কার ছবিগুলো

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান নাসার মহাকাশযান ‘নিউ হরাইজন’ প্লুটো গ্রহের সবচেয়ে কাছে গিয়ে ছবি তুলেছে। আর সংস্থাটির দাবি এই দশকের সবচেয়ে পরিষ্কার ছবি সেগুলো। আর এর মাধ্যমে গ্রহটি সমএন্ধ আরো বিস্তারিত জানা যাবে বলে আশা করছেন বিজ্ঞানীরা।

প্রাপ্ত এই ছবিগুলোতে প্লুটোর ভুগঠনের বৈশিষ্ট বেশ পরিষ্কারভাবে বোঝা যাচ্ছে। নাসার সেই ছবিগুলো নিয়ে সংবাদমাধ্যম সিএনএন একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

151205142948-01-pluto-051215-exlarge-169

মহাকাশযান নিউ হরাইজনের তোলা ছবিতে প্লুটো গ্রহের পাহাড়ি উপকূল। সমতল ভূমিটিকে বিজ্ঞানীরা স্পুটোনিক প্লানাম বলে থাকেন। এই স্পুটোনিক প্লানাম হচ্ছে প্রায় ২০ মাইল বিস্তৃত এলাকা জুড়ে বরফাচ্ছাদিত একটি এলাকা।

নিউ হরাইজনের পাঠানো সাদা কালো ছবিগুলোতে প্লুটো গ্রহের গর্তসমূহ, আগ্নেয়গিরির মুখ এবং ৫০ মাইল ব্যাপী হিমবাহের ভূখণ্ড স্পষ্ট প্রত্যক্ষ করা যাচ্ছে।

151205143341-02-pluto-051215-exlarge-169

প্লুটো গ্রহের বিশালাকার আগ্নেয়গিরির মুখের অভ্যন্তরীন বিভিন্ন স্তরের পরিষ্কার ছবি। বিজ্ঞানীরা মনে করেন এই বিভিন্ন স্তর প্লুটোর ভূখন্ডের বিভিন্ন উপাদানের পরিবর্তনের চিত্র প্রকাশ করে।

এ বছরের জুলাই মাসে মহাকাশযান নিউ হরাইজন প্লুটোর সবচেয়ে নিকটবর্তী স্থানে প্রদক্ষিণ করার সময় ছবিগুলো তুলে পৃথিবীতে পাঠায়। নিউ হরাইজন সেসময় পৃথিবী থেকে প্রায় ৪.৬৭ লক্ষ কোটি মাইল দূরত্বে প্লুটোকে প্রদক্ষিণ করছিল।

151002121310-03pluto -charon-exlarge-169

উন্নত রঙের ব্যবহার করা এই ছবিতে প্লুটো গ্রহ এবং তার চাঁদ চারনের একটি আকর্ষনীয় মিল পর্যবেক্ষন করা যাচ্ছে। প্লুটো এবং তার চাদের আকার, প্রকৃতি এবং রঙ প্রায় অনুরুপ আর এই বিষয়টি এই ছবিতে উল্লেখযোগ্য ভাবে ফুটে উঠেছে।

নিউ হরাইজন ছবিগুলোর মাধ্যমে প্লুটোর বরফে আচ্ছাদিত প্রায় ৮০০ কিলোমিটার বিস্তৃত এলাকা দেখিয়েছে। এই ৮০০ কিলোমিটার বিস্তৃত এলাকায় আল আদ্রিসি পাহাড় এবং স্পুটনিক প্লানামের উপকূলেরও অত্যন্ত স্পষ্ট ছবি পেয়েছে বলে দাবি করেছে নাসা।

150911091657-03-pluto-0910-exlarge-169

প্লুটোর ভূত্বকের বৈশিষ্ট্য অনেক বিচিত্র। এই গ্রহে পাহাড়, গর্ত, সমভূমি লক্ষ্য করা যায়। এই ছবিতে যে ভূস্তর লক্ষ্য করা যাচ্ছে তাকে বিজ্ঞানীরা বালিয়াড়ি বলে ধারণা করছেন। অসংখ্য আগ্নেয়গিরির মুখ সংবলিত এই অংশটি অত্যন্ত প্রাচীন বলে ধারণা করছেন নাসার বিজ্ঞানীরা।

সাবেক মহাকাশচারী এবং নাসার সায়েন্স মিশন ডিরেকটরেটের সহযোগী প্রশাসক জন গ্রুন্সফেল্ড এই বলে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন যে, “নিউ হরাইজন জুলাই মাসে প্লুটো প্রদক্ষিনের সময় প্রথম যে ছবিটি পাঠিয়েছিল সেটি আমাদের বিস্মিত করেছিল, কিন্তু তারপরই যখন একের পর এক অসাধারন সব স্পষ্ট ছবি আমরা পেতে থাকলাম তখন আমরা অভিভূত হয়ে গেলাম”।

151002121139-01-charon-exlarge-169

প্লুটোর সবচেয়ে বৃহদাকার চাঁদ, চারনের একটি রঙ্গিন ও স্পষ্ট চিত্র দেখা যাচ্ছে এই ছবিতে। জুলাই মাসের ১৪ তারিখে মহাকাশযান নিউ হরাইজন প্লুটোর চাঁদ চারনের সবচেয়ে কাছাকাছি স্থানে প্রদক্ষিণ করে এবং এই ছবিটি তুলে পাঠায়।

অবশিষ্ট ছবি এবং তথ্য পেতে আরো এক বছরের মত সময় লাগবে বলে ধারণা করছেন নাসার বিজ্ঞানীরা। আগামী সপ্তাহে আরো কিছু ছবি বিজ্ঞানীরা পাবেন বলে আশা করছেন যাতে প্লুটো গ্রহের ভূখন্ডের আরো কিছু অংশের পরিষ্কার চিত্র থাকবে।






মন্তব্য চালু নেই