মেইন ম্যেনু

এ যেন সত্যিই পূর্ণিমা’র চাঁদ!

প্রত্যেক মাসেই চাঁদ ওঠে। চাঁদের আবার জোছনা হয়। চাঁদের আলোয় কত কবিতা কত গান হয়ে যায় লেখকের মনে। পূর্ণিমার আলো কত লেখক তার লেখায় ছড়িয়ে দিয়ে সাক্ষী হয়ে থাকেন। পূর্ণিমা যে শুধু চাঁদের আলোয় হয় তা নয়। এ লেখায় যে পূর্ণিমা তিনি অভিনেত্রী পূর্ণিমার কথা। একটা সময় তার আলো ছড়িয়ে গিয়ে ছিল পুরো বাংলাদেশ। কত শত চলচ্চিত্রে অভিনয় করে নিজের নামের ঠিকই স্বার্থকতা রেখেছেন। এখনও তাঁর নাম শুনলে পাঠক হয়ত বলতে পারেন আফসোস করে আহ! তাকে তো আর বড় পর্দায় দেখি না। তাঁর ভক্তরা হয়তো এখনও সেই আগের পূর্ণিমার আয়নার পিছনে থাকা ছবি দেখে পার করছেন দিন রাত।

হ্যাঁ। অভিনেত্রী পূর্ণিমার জনপ্রিয়তা এতটাই ছিল যে নব্বই দশকের মাঝামাঝি সময়ে অসংখ্য তরুণের পূর্ণিমার আলো হয়ে ওঠেন তিনি। এখনও রয়েছে তাঁর সেই আলো। মিডিয়াতে এখন নিয়মিত অভিনয় না করলেও বিশেষ কোন দিনে ছোট পর্দার নাটকে দেখতে পাওয়া যায় তাঁকে। তবে তা খুবই সীমিত। ব্যস্ততা এখন তাঁর সংসার ও একমাত্র কন্যাকে নিয়ে। সম্প্রতি পূর্ণিমা তার ফেসবুকে নতুন লুকে কিছু ছবি দিয়েছেন। তা দেখে পাঠক হয়তো আবারও তাঁদের পূরনো সেই পূর্ণিমাকে খুঁজে পাবেন। রাতেই চাঁদ ওঠে এবং অভিনেত্রী পূর্ণিমার ছবি গুলো রাতেই তোলা। তাই পাঠক বলতেই পারেন। এ যেন সত্যি পূর্ণিমার চাঁদ।






মন্তব্য চালু নেই