মেইন ম্যেনু

‘ওজন ঝরিয়ে ঝুলন্ত ত্বক নিয়ে নতুন বিপাকে তিনি’

নিজের ওজনের অর্ধেকের বেশি কমিয়েছেন ইমা লোভেল। অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে অতিরিক্ত ওজন কমিয়ে এখন বেশ বিড়ম্বনায় রয়েছেন তিনি। এর ফলে তার ত্বক ঝুলে গিয়েছে।

এমনও দেখা গিয়েছে ইমা গাড়িতে বসলে তার ত্বক গাড়ির বাইরে পর্যন্ত ঝুলে থাকে। তিনি বলেন, জীবনে এতোটা হতাশ এর আগে কখনো হইনি। কিন্তু এরপরও আমি আমার শরীরকে ভালোবাসি। অতিরিক্ত ঝুলন্ত ত্বক নিয়েও আমার ওজন ২০ থেকে ৪০ কেজির মধ্যে। যা আমাকে আরো বেশি ভাবিয়ে তুলেছে।

ইমা বলেন, আমি গাড়িতে বসলে ত্বক বাইরে ঝুলে থাকে। আবার এমনও আছে যে, আমি দৌড়াতে পারি না। কারণ আমার ত্বক বেশি ঝুলে গেছে। ১২ থেকে ১৪ সাইজের ট্রাউজার হলেও, ত্বকের জন্য আমাকে ২০ সাইজের ট্রাউজার পরতে হচ্ছে।

ইমা বলেন, পোশাক ছাড়া সঙ্গীর সামনে যেতে এখন আমার বিব্রত লাগে। যদিও তিনি আমাকে আশ^স্ত করেছেন, যে এখনো আমাকে আগের মতোই ভালোবাসেন। কিন্তু আমি আস্থা হারাতে শুরু করেছি।

ছোট থেকেই বেশ স্থূলকায় ছিলেন ইমা। স্কুলের লাইব্রেরিতে বসে প্রচুর সময় কাটাতেন। এমনকি টিফিনের ফাঁকেও কিছু খেতেন না। বন্ধুরা তাকে নিয়ে ঠাট্টা করতো, এজন্য স্কুলে কোনো বন্ধুও হয়নি ইমার। বরং নিজের চেয়ে ছোট ক্লাসের কিছু ছেলে-মেয়ের সঙ্গে সখ্যতা গড়ে উঠে ইমার। এরাও বেশ স্থ’ূলকায়। সবাই তাদের নিয়ে হাসি-তামাশা করলেও পাত্তা দিলেন না ইমা এবং তার বন্ধুরা।

ইমা জানালেন, ছোট থেকেই তিনি পরিমিত খাবার খান। এমনকি নিয়মিত ব্যায়ামও করতেন। তাও ওজন বেড়ে যাওয়ায় চিকিৎসকের কাছে গিয়েছিলেন। চিকিৎসক জানান, তার শরীর কার্বোহাইড্রেট গ্রহণ করতে পারে না। এজন্য এমন অস্বাভাবিক ওজন বাড়ছে ইমার।

চিকিৎসকের পরামর্শে সকল ধরনের কার্বোহাইড্রেট খাদ্য তালিকা থেকে বাদ দিলেন ইমা। তাতেও যখন লাভ হলো না, সে চিন্তা করলো অস্ত্রোপচারের। ছুরি-কাঁচির নিচে একধাপে ১০ থেকে ২০ কেজি ওজন কমিয়ে ফেলেন ইমা। কিন্তু এর ফলে দেখা গেল নতুন বিপদ। ঘন ঘন অসুস্থ হতে শুরু করলেন তিনি। শরীর শুষ্ক হতে শুরু করে।

প্রতি তিন থেকে ছয় মাস অন্তর নিয়মিত চেকআপে যান ইমা। তবু এখনো সমস্যা থেকে মুক্তি মেলেনি তার। অতিরিক্ত ঝুলন্ত চামড়া নিয়ে এখন মহাবিপাকে তিনি।






মন্তব্য চালু নেই