মেইন ম্যেনু

ওডিশায় তাবদাহে ৩০ জনের মৃত্যু

গত এক সপ্তাহে ভারতের ওডিশা ও অন্যান্য প্রদেশে অতিরিক্ত তাপপ্রবাহে অন্তত ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

দেশটির আবহাওয়া বিভাগ জানিয়েছে, গত পাঁচ বছরে এটি সবচেয়ে উষ্ণতম এপ্রিল। ধারণা করা হচ্ছে, এই অবস্থার আরো অবনতি হবে। দেশজুড়ে অনাবৃষ্টি ও বিশুদ্ধ খাবার পানির অভাব এই গ্রীষ্মকে আরো বেশি অস্থির করে তুলেছে।

দেশটির সরকার বলছে, দেশের ৯১টি প্রধান পানি সংরক্ষণাগারে গত ১০ বছরের মধ্যে পানির পরিমান সর্বনিম্ন পর্যায়ে পৌঁছেছে এবং এই হার শতকরা ২৩ ভাগ।

এদিকে ওডিশার বিভিন্ন জায়গায় ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের উপরে তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। এই সপ্তাহে প্রাদেশিক রাজধানী ভুবেনেশ্বরে তাপমাত্রা ৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস স্পর্শ করেছে। ওডিশার কর্তৃপক্ষ ২০ এপ্রিল পর্যন্ত সব স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে। ইঞ্জিনিয়ার ও কর্মচারীরা খাবার পানি নিশ্চিত করতে কাজ করছে।

অন্যদিকে তেলেগানা সরকার রাজধানী হায়দরাবাদসহ অন্যান্য স্থানে মঙ্গলবার ও শুক্রবার তাবদাহের সতর্কতা জারি করেছে। গত কয়েক দিনে তেলেগানায় তাবদাহে ৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, মহারাষ্ট্রের মারাঠা ও গাঙ্গেয় পশ্চিম বঙ্গেও একই অবস্থার সৃষ্টি হতে পারে।

এদিকে প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়া স্কাইমেট নামে বেসরকারি একটি আবহাওয়া পূর্বাভাস সংস্থার বরাত দিয়ে জানিয়েছে, দিল্লি, রাজস্থান, পাঞ্জাব, হরিয়ানা, গুজরাট, উত্তর ও মধ্য প্রদেশে আগামী দুই দিনে ধারাবাহিকভাবে এক থেকে তিন ডিগ্রি তাপমাত্রা বাড়বে।

আর কর্ণাটক প্রদেশ এই বছরে প্রথম খরা ঘোষণা করে। এই প্রদেশের অন্তত ৫০০টি গ্রাম ট্যাঙ্কের মাধ্যমে পানি সরবরাহকারীদের উপর সর্ম্পূণভাবে নির্ভশীল হয়ে পড়েছে।






মন্তব্য চালু নেই