মেইন ম্যেনু

ওয়ালশকেই পাচ্ছেন মাশরাফি-মুস্তাফিজরা

হিথ স্ট্রিকের পর নতুন বোলিং কোচ কে হচ্ছেন, তা নিয়ে অনেক দিন ধরেই নানা জল্পনা-কল্পনা চলছে বাংলাদেশের ক্রিকেট অঙ্গনে। চামিন্দা ভাস, ভেঙ্কটেশ প্রসাদ, অ্যালান ডোনাল্ড; অনেকের নামই শোনা গিয়েছিল। তবে শেষ পর্যন্ত এঁদের কাউকেই দেখা যাচ্ছে না মাশরাফি-মুস্তাফিজদের কোচ হিসেবে। বাংলাদেশের নতুন বোলিং কোচ হিসেবে দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের কিংবদন্তি পেসার কোর্টনি ওয়ালশ।

ওয়ালশের দায়িত্ব গ্রহণের বিষয়টি প্রায় নিশ্চিতই ছিল। অপেক্ষা ছিল শুধু আনুষ্ঠানিক ঘোষণার। সেটাও আজ বুধবার দিয়ে দিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড। আগামী সপ্তাহে বাংলাদেশে এসেই চুক্তি স্বাক্ষরের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করতে পারেন ওয়ালশ। তাঁর সঙ্গে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের চুক্তি হবে ২০১৯ সালের বিশ্বকাপ পর্যন্ত।

বাংলাদেশের প্রতিভাবান ক্রিকেটারদের সঙ্গে কাজ করতে পারার সুযোগটা কোনোভাবেই হাতছাড়া করতে চাননি বলে জানিয়েছেন ওয়ালশ, ‘আমি কয়েক বছর ধরেই বাংলাদেশের ক্রিকেট দেখছি। তারা সত্যিই খুব প্রতিভাবান খেলোয়াড়। কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে খুব দারুণ কাজ করেছেন। বিশেষজ্ঞ বোলিং কোচ হিসেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে আমি রোমাঞ্চিত।’

২০০১ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের পর মূলত বিভিন্ন প্রশাসনিক পদেই দেখা গেছে ওয়ালশকে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের নির্বাচক, ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগের দল জ্যামাইকা তালাওয়াসের মেন্টর, ওয়েস্ট ইন্ডিজের অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ম্যানেজার হিসেবে কাজ করেছেন সর্বকালের অন্যতম সেরা এই পেসার। এবার তিনি কোচিং ক্যারিয়ার শুরু করবেন বাংলাদেশের বোলিং কোচ হিসেবে।

ওয়ালশের আগে বাংলাদেশ কোচ হিসেবে পেয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের আরেক কিংবদন্তি গর্ডন গ্রিনিজকে। তাঁর তত্ত্বাবধানেই বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অঙ্গনে পেয়েছিল প্রথম সাফল্য। ১৯৯৭ সালের আইসিসি ট্রফি জিতে অংশ নিয়েছিল ১৯৯৯ সালের বিশ্বকাপে।

১৯৮৪ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত ১৩২টি টেস্ট খেলে ওয়ালশ নিয়েছিলেন ৫১৯ উইকেট। সে সময় এটিই ছিল টেস্টে সর্বোচ্চ উইকেটের রেকর্ড।






মন্তব্য চালু নেই