মেইন ম্যেনু

ওয়াশিংটনে পরিবারের ৪ জনকে গুলি করে আত্মহত্যা

নিজের পরিবারের চারজনকে গুলি করে হত্যা করার পর আত্মহত্যা করেছেন এক বন্দুকধারী। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন অঙ্গরাজ্যে এই চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে। তবে কি কারণে ওই ব্যক্তি এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন তা এখনও জানা যায়নি।

ম্যাসোন কাউন্টির প্রধান ডেপুটি রিয়ান স্পারলিং জানিয়েছেন, ওই বন্দুকধারী শুক্রবার সাহায্যের জন্য ৯১১য়ে ফোন করেছিলেন। তিনি জানিয়েছিলেন, তিনি তার পরিবারের সদস্যদের গুলি করে হত্যা করেছেন। ওই ফোন পাওয়ার পরপরই পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। তারা টানা তিন ঘণ্টা ওই ব্যক্তির সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেন। কিন্তু ওই ব্যক্তি তাদেরকে ঘরে প্রবেশ করতে দিচ্ছিলেন না এমনকি তাদের সঙ্গে ওই ঘটনা সম্পর্কে কোনো কথাও বলতে চাননি তিনি। এরপর ওই বন্দুকধারী কর্মকর্তাদের সামনেই নিজেকে গুলি করে আত্মহত্যা করেন।

কর্মকর্তারা বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করে চারটি মৃতদেহ দেখতে পান। এ সম্পর্কে স্পারলিং বলেন, বন্দুকধারী কর্মকর্তাদের সামনেই নিজেকে গুলি করে আত্মহত্যা করেন।

ওই দুর্ঘটনার সময় ঘর থেকে পালিয়ে গিয়েছিল ১২ বছরের এক মেয়ে। তাকে গুলি করতে পারেনি ওই বন্দুকধারী। পরে কর্মকর্তারা তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। এ সম্পর্কে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ওই মেয়েটির সঙ্গে বন্দুকধারী ব্যক্তিটির সম্পর্ক কি তারা তা জানতে পারেননি। তবে ধারণা করা হচ্ছে তারা একই পরিবারের সদস্য। ধারণা করা হচ্ছে নিহতরাও একই পরিবারের সদস্য। এ বিষয়ে তদন্ত করছে পুলিশ।






মন্তব্য চালু নেই