মেইন ম্যেনু

কক্সবাজার শহরে শতবর্ষী শিশু গাছ কর্তন

মোঃ আমান উল্লাহ, কক্সবাজার: কক্সবাজার শহরের প্রাচীন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান বদরমোকাম জামে মসজিদ। প্রখর রোধে এ মসজিদে নামাজ পড়তে আসা হাজার হাজার মুসল্লিদের ছায়াদানকারী একমাত্র শতবর্ষী শিশু গাছটি কেটে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই গাছের একশ গজের মধ্যে রয়েছে বন বিভাগ সহ পরিবেশ সংশ্লিষ্ট দপ্তর সমূহ। তাদের নাকের ঢগায় দাড়িয়ে এই শতবর্ষী শিশু গাছটি কেটে নিল গাছটির মালিক দাবীদার জনৈক মোঃ হান্নান এমন অভিযোগ পরিবেশবাদীদের। তারা এর বিরুদ্ধে কঠোর আইনী পদক্ষেপ নেওয়ার দাবীও জানিয়েছে। অপর দিকে গাছটির মালিকানা নিয়েও রয়েছে জঠিলতা।

সরজমিনে পরিদর্শনকালে জানা যায়, কক্সবাজার শহরের প্রাণ কেন্দ্র থানা রোডের বদর মোকাম মসজিদ সংলগ্ন এই শিশু গাছটি সুদীর্ঘ শতবর্ষ ধরে রাস্তার পাশে বেড়ে উঠেছিল। পাশাপাশি মসজিদের জায়গা সংকুলান না হলে এ পুরাতন গাছটির ছায়ায় বসে অনেকে নামাজ পড়ত কিংবা অবসর সময়ে অনেকে গাছের ছায়ায় বিশ্রাম নিত। অপরদিকে এই গাছটি বাঁকখালী নদীর ভাঙ্গন থেকে রক্ষা করেছিল এই এলাকাটি। কিন্তু জমির মালিক দাবীদার ওই মোঃ হান্নান লোভের বশবর্তী হয়ে গাছটি কর্তন করে নিল।

নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক বয়ঃবৃদ্ধ জনৈক ব্যক্তি জানান, শতবর্ষী এই শিশু গাছটি বদর মোকাম মসজিদের। কিন্তু ওই মোঃ হান্নান জমিটি তার পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত মালিক হিসাবে গাছটিও তার বলে দাবী করছেন।

এই ব্যাপারে সেভ দ্যা নেচার সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন রিয়াদ বলেন, পরিবেশ অধিদপ্তর ও বনবিভাগের দায়িত্বহীন আচরণ এবং তাদের অবিহিত করার পরও কোন পদক্ষেপ গ্রহন না করার কারণে গাছটি কে বাঁচাতে পারলাম না।

পরিবেশ অধিপ্তরের সহকারী পরিচালক সর্দার শরিফুল ইসলাম বলেন, গাছ কাটার বিষয়ে আমরা অভিযোগ পেয়েছি। গাছ কর্তনকারীদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।






মন্তব্য চালু নেই