মেইন ম্যেনু

কচ্ছপের যত্ন না নেয়ায় খামার ম্যানেজারের মৃত্যুদণ্ড!

ফের নৃশংসতার নজির গড়লেন উত্তর কোরিয়ার একনায়ক কিম জং উন। তার জমানায় হত্যালীলা নতুন কিছু নয় বলেই দাবি বিরোধীদের।

কচ্ছপের এক বিশেষ প্রজাতির (টেরাপিন) যত্ন ঠিক মতো না হওয়ায় উত্তর কোরিয়ায় এবার প্রাণ গেল এক খামারের ম্যানেজারের। মে মাসের মাঝামাঝি তিয়াডংগং টেরাপিন খামার ঘুরে দেখতে গিয়েছিলেন কিম। বাবার ইচ্ছেতে কয়েক বছর আগে তিনিই তৈরি করেন ওই খামারটি। শাসককে নিজেদের কীর্তি ঘুরিয়ে দেখাতে নিজেই এগিয়ে এসেছিলেন সেখানকার অধিকর্তা। কিন্তু বিপত্তি বাধে কিছুক্ষণ পরেই। খামারে প্রিয় টেরাপিনদের দেখে মুখে হাসি ফোটেনি কিম জংয়ের। বরং খাবার না পেয়ে কয়েকটি ছোট কচ্ছপ মারা গেছে শুনেই মেজাজ হারান তিনি। অধিকর্তা বোঝানোর চেষ্টা করেছিলেন, বিদ্যুৎ সংযোগ মাঝে মাঝে চলে যায় বলেই খাবার, জলের জোগানে টান পড়ে। বড় টেরাপিন পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারলেও ছোটদের ওপর এর প্রভাব পড়েছে বেশি। কিন্তু সেসব যুক্তি কানেই তোলেননি কিম।

কর্মীদের ওপর রেগে চিৎকার করছেন, শাসকের সেই উত্তেজিত ছবি বেরিয়েছিল স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে। কিন্তু দক্ষিণ কোরিয়ায় এক সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে, কেবল বকাঝকাতেই মেটেনি শাসকের রোষ। তিনি বেরোনোর পরই গুলিতে ঝাঁজরা হয়ে যায় তিয়াডংগং খামারের ম্যানেজারের শরীর।






মন্তব্য চালু নেই