মেইন ম্যেনু

কবর থেকে মৃত ব্যক্তির লাশ তুলে বাঁচানোর চেষ্টা!

কুসংস্কার আর ধর্মান্ধতার হাত থেকে রেহাই পাচ্ছে না সমাধিস্থ লাশও। নিশ্চিত মৃত্যুর পরও মৃত ব্যক্তির লাশ তুলে তাকে বাঁচানোর চেষ্টা করা হচ্ছে, যার পুরোটাই আহম্মকি ছাড়া কিছুই নয়।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মালদহে শনিবার থেকে ‘লাশে প্রাণ ফেরানোর নাটক’ চলছে। মালদহের কামালপুরের যুবক মিঠুন মণ্ডল শুক্রবার সাপের কামড়ে মারা যান। তিনি নিজে সাপুড়ে ছিলেন। গলায় সাপ জড়িয়ে সর্পদেবী মনসার গান গেয়ে বেড়াতেন তিনি। কিন্তু সেই সাপের ছোবলেই প্রাণ যায় তার। খবর জিনিউজ অনলাইন।

শনিবার সমাধি থেকে মিঠুরের লাশ তোলা হয়। দিনভর চলে ঝাড়ফুঁক। না, তার দেহে প্রাণ ফিরে আসেনি। অর্থাৎ তাকে বাঁচানো যায়নি। এই বর্বর ঘটনা পুলিশের কানে যায় এবং পুলিশের তৎপরতায় মিঠুনের লাশ আবার সমাধিস্থ করা হয়।

এখানেই শেষ নয়। এক দিন বাদে সোমবার সকালে আবার তোলা হয় মিঠুনের লাশ। ততক্ষণে তার লাশে পচন ধরেছে। কিন্তু ঝাড়ফুঁকওয়ালারা তাতে ক্ষান্ত না হয়ে আবার তাদের বর্বতায় মেতে ওঠে। না, এখনো মিঠুন বেঁচে ওঠেনি। ওঠার কথা কি? এমনটা অন্তত শোনা যায় না।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই