মেইন ম্যেনু

কবর দেয়ার মুহূর্তে জেগে উঠলো মৃত শিশু

বৃহস্পতিবার রাতে প্রসব যন্ত্রণা ওঠায় পশ্চিমবঙ্গের কৃষ্ণনগর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় বুলবুলি মণ্ডলকে। আর গতকাল ছেলে সন্তানের জন্ম দেন তিনি। জন্মের কিছুক্ষণ পরেই তুলো ও লিউকোপ্লাস্টে জড়ানো সদ্যোজাতকে তুলে দেয়া হয়েছিল মা-বাবার হাতে।

কিন্তু কিছুক্ষণ পরই চিকিৎসকরা জানিয়ে দেন, তাদের সন্তান বেঁচে নেই। এমনকী হাসপাতাল থেকে ডেথ সার্টিফিকেটও দেয়া হয়।

সদ্যোজাতের দেহ নিয়ে বাড়ি ফিরে যান বুলবুলি মণ্ডল ও তার স্বামী শফিকুল মণ্ডল। বুকে পাথরচাপা দিয়েই প্রিয় সন্তানকে শেষ বিদায়ের আয়োজন করেন। সেই সময়ই নড়ে ওঠে ওই শিশু। তার দেহে লক্ষ্য করা যায় প্রাণের স্পন্দন।

একটু আশার আলোর দেখা মিলতেই তাকে নিয়ে আবার হাসপাতালে ছুটে যায় তার পরিবারের লোকেরা। শুরু হয় চিকিৎসা। এমন ঘটনাই ঘটলো পশ্চিমবঙ্গের নদীয়ার চাপড়ার বহিরগাছিতে।

আর এ ঘটনায় হাসপাতালের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। কী কারণে সদ্যোজাতকে মৃত বলে ঘোষণা করা হলো তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তার পরিবারের লোকজন।






মন্তব্য চালু নেই