মেইন ম্যেনু

কমছে না বাস ভাড়া : সুবিধা নিচ্ছে পরিবহন মালিক ও সরকার

আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম অর্ধকে নেমে এলেও এখন পর্যন্ত ১পয়সারও সুবিধা পাচ্ছে না সাধারণ মানুষ। বাস ভাড়া নিয়ে সাধারণ মানুষ প্রতিদিন বাস শ্রমিকদের সাথে বাক-বিতন্ডে জড়িয়ে পরছে। কিন্তু এর সমাধান কোথাও মেলে না।

আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমার পর দেশে নাম মাত্র কিছু টাকা কমিয়েছে সরকার। ফলে এখন পর্যন্ত পরিবহন ভাড়া কমেনি। দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমলেও স্থানীয় বাজারে গত রোববার কিছু টাকা কমানো হয়। তেলের দাম না কমানোর যুক্তি হিসেবে বার বার আগের ভূর্তুকি কমিয়ে আনার কথা বলছে সরকার।

কথা হয় রাজধানীর সেফটি বাসের যাত্রী ফারুকের সাথে তিনি অভিযোগ করে বলেন, তেলের দাম ১ টাকা বাড়লে ভাড়া বৃদ্ধি করা হয় ৩ টাকা, কিন্তু তেলের দাম ১০ টাকা কমলে এক পয়সা কমে না ভাড়া। এ দেশে যে জিনিষের দাম একবার বারে সেটি পৃথিবীর সব জায়গায় কমলেও আমাদের এখানে কমে না।

রাজধানীর মোহাম্মদপুর থেকে গুলশানে যাবেন তানজিনা সে তরঙ্গ বাসের জন্য টিকিট করবে, টিকিটের দাম চাওয়া হয়েছে ২০ টাকা সে ১৫ টাকা দিতে চাইলে তাকে বাসের হেলপার উঠতে নিষেধ করে, তানজিনা হেলপারকে বলে আমি এখান থেকে আগে ১০ টাকায় যেতাম কিন্তু ৪ বছরের ব্যাবধানে ২০ টাকা হয়ে গেছে তেলের দাম কমছে তোমরা ১ টাকাও কমালে না জবাবে হেলপার বলে আমাদের কিছু করার নেই মালিকদের আপনারা বলেন।

বর্তমানে অকটেন ও পেট্রোলে লিটার প্রতি কমেছে ১০ টাকা, সেই হিসাবে এই দুই জ্বালানি তেলের দাম হবে যথাক্রমে ৮৯ ও ৮৬ টাকা। আর ডিজেল ও কেরোসিন দাম কমবে লিটার প্রতি ৩ টাকা, সেই হিসাবে বাজারদর হবে ৬৫ টাকা লিটার।

আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম ২০১৪ সালের জুন থেকে কমেছে। কিন্তু দেশে দাম না কমানোয় গত দুই বছর ধরে লাভ করছে বিপিসি। বিপিসি প্রতি লিটার অকটেন ৯৯, পেট্রোল ৯৬, কেরোসিন ও ডিজেল ৬৮ টাকায় বিক্রি করছে। বর্তমানে আন্তর্জাতিক বাজারের সাথে সমন্বয় করলে অকটেন ৪০ থেকে ৫০ টাকা, পেট্রোল ৩৫ থেকে ৪৫ টাকা, কেরোসিন ২২ থেকে ৩০ টাকা হওয়ার কথা।

বিশ্লেষকরা বলছেন, তেলের আগের ভর্তুকির টাকা উঠাতে চাচ্ছে সরকার। সাথে সরকারি চাকরির বেতন বাড়ানোসহ বাজেটে যে ঘাটতি আছে তা কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছে। ফলে আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমলেও দেশের সাধারণ জনগণ এর কোন সুফল পাচ্ছে না।

এদিকে, সাম্প্রতিক বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু বলেছেন, ফার্নেস তেলের মূল্য প্রতি লিটারে ১০-১৫ টাকা কমিয়েছি। পহেলা বৈশাখ থেকে ১০ দিনের মধ্যে জ্বালানি তেলের দাম সরকারের জ্বালানি তেল আমদানি ও বিপণনকারী সংস্থা বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের চেয়ারম্যান এ এম বদরুদ্দোজা জানান, আমরা পর্যায়ক্রমে তেলের দাম কমাব। চাইলে একবারে তেলের দাম কমানো যায় না। যে কেন সময় আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম বেড়ে যেতে পারে। বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমায় গত দুই বছর থেকে সব ধরনের তেল বিক্রি করে মুনাফা করছে বিপিসি।

তিনি বলেন, গত অর্থবছরে (২০১৪-১৫) বিপিসি পাঁচ হাজার কোটি টাকা লাভ করেছে। আর চলতি অর্থবছরে (২০১৫-১৬) ৭ হাজার কোটি টাকা লাভের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। এর মধ্যেই অর্থবছরের প্রথম তিন মাসে মুনাফা হয়েছে প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা।

সূত্র জানায়, দেশে জ্বালানি তেলের চাহিদা প্রায় ৫৫ লাখ মেট্রিক টন। যার প্রায় পুরোটাই আমদানি করা হয়। এ তেল সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয় পরিবহন খাতে, ৪৫ শতাংশ। এছাড়া বিদ্যুৎ খাতে ২৫ শতাংশ, কৃষি খাতে ১৯ শতাংশ, শিল্প খাতে ৪ শতাংশ এবং গৃহস্থালী ও অন্যান্য খাতে ৭ শতাংশ।






মন্তব্য চালু নেই