মেইন ম্যেনু

কমলাপুরে টিকিট আছে, ক্রেতা নেই!

ঈদে ঘরফেরত মানুষের জন্য রেলের অগ্রিম টিকিট থাকলেও ক্রেতা নেই কমলাপুর রেলস্টেশনের কাউন্টারগুলোতে। অবাক করা এ চিত্র দেখা গেছে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে। এদিন সকাল ৮টায় কাউন্টার খোলার সময় শত শত টিকিট প্রার্থী কমলাপুরে ভীড় করলেও এক ঘণ্টার মধ্যেই ফাঁকা হয়ে যায় রেলস্টেশন।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) সকাল ৮টা থেকে দ্বিতীয় দিনের মতো ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয় কমলাপুর রেলস্টেশনে। এদিন ২ জুলাইয়ের বিভিন্ন গন্তব্যের টিকিট দেওয়া হচ্ছে। সকালে কাউন্টার খোলার আগে রেলস্টেশন মানুষে গমগম করলেও এক ঘণ্টার মধ্যেই ফাঁকা হয়ে যায় বেশ কয়েকটি কাউন্টার। বুকিং কাউন্টার থেকে জানানো হয়, এখনো অর্ধেক টিকিট বিক্রি হয়নি, অথচ ক্রেতা নেই।

এ সময় বেশ কয়েকটি কাউন্টারে বুকিং সহকারীদের গল্পে মশগুল থাকতে দেখা গেছে। ৯ নম্বর কাউন্টারের বুকিং সহকারী শফিউল ইসলাম বলেন, এখনও ৫০ শতাংশ টিকিট বিক্রি বাকি। কিন্তু টিকিট কেনার লোক নেই। বিগত বছরগুলোতে এমন চিত্র দেখা যায়নি। এ কাউন্টার থেকে দেওয়া হচ্ছে বৃহত্তর চট্টগ্রাম অঞ্চলের টিকিট।

ঢাকা বিভাগীয় রেলওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আব্দুল মজিদ বলেন, আমরা এখানে নিয়মিত ডিউটি করি। এখন কাউন্টারে যে ভিড় দেখতে পাচ্ছেন স্বাভাবিক সময়ে এর চেয়েও বেশি ভিড় দেখা যায়।






মন্তব্য চালু নেই