মেইন ম্যেনু

কমোড পরিষ্কার করার সহজ ৬টি কৌশল

টয়লেট পরিষ্কার করাটাই অনেক ঝামেলার। তার উপর কমোড পরিষ্কার করাটা তো আরো বেশি ক্লান্তিকর বিশেষ করে আপনি যদি এটাকে ঝকঝকে করতে চান। বাজারে কমোড পরিষ্কারের জন্য অনেক পণ্য পাওয়া যায় যা রাসায়নিক সমৃদ্ধ। এগুলো পরিষ্কার করার পাশাপাশি আপনার কমোডের বর্ণ ও ফ্যাকাসে করে দিবে। এই সমস্যাটি প্রতিরোধের জন্য প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করাই সবচেয়ে ভালো সমাধান। কমোড পরিষ্কার করার জন্য যে প্রাকৃতিক উপাদানগুলো ব্যবহার করা যায় তা হল :

১। ভিনেগার

প্রথমে টয়লেট ফ্ল্যাশ করে নিন। ১০ মিনিট পর টয়লেট পরিষ্কার করার ব্রাশ দিয়ে ব্রাশ করে নিন। তারপর ১ গ্লাস ভিনেগার কমোডে ঢালুন এবং ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর আবার খুব ভালোভাবে ব্রাশ করুন। এরপর ফ্ল্যাশ করুন।

২। বেকিং সোডা ও ভিনেগার

রাতে ২ টেবিলচামচ বেকিং সোডা কমোডে ছিটিয়ে রাখুন। সকালে তিনবার ফ্ল্যাশ করুন। তারপর আধা কাপ ভিনেগার কমোডে দিয়ে ভালো করে ব্রাশ করুন। এর ফলে কমোডের যেকোন ধরণের দাগই দূর হবে।

৩। লেবুর রস ও বোরাক্স

লেবু এমন একটি ফল যা দিয়ে আপনি ঘরের যেকোন জিনিস পরিষ্কার করতে পারেন। আপনার টয়লেটের কমোডটি ঝকঝকে পরিষ্কার করার জন্য একটি পাত্রে ১ কাপ বোরাক্স নিয়ে এর সাথে ২টি লেবুর রস যোগ করুন। উপাদান দুটি ভালোভাবে মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করুন। কমোডে পানি দিয়ে দিন বা ফ্ল্যাশ করে নিন যাতে কিনারের অংশগুলোও ভিজে। একটি স্পঞ্জের সাহায্যে মিশ্রণটি কমোডের সব জায়গায় লাগান। ২ ঘন্টা রাখার পর ব্রাশ দিয়ে ভালো করে মেঝে ধুয়ে নিন। কমোডের রিং এর একগুঁয়ে দাগ দূর করতে এটি চমৎকার কাজ করে।

৪। বেকিং সোডা

৩ টেবিলচামচ বেকিং সোডা কমোডে ছিটিয়ে রাখুন সারারাত। সারারাত থাকার ফলে এটি কমোডের মধ্যে শোষিত হবে। সকালে ফ্ল্যাশ করুন এবং ব্রাশ দিয়ে ভালোভাবে ঘষুন। তারপর আবারো ফ্ল্যাশ করুন। আপনার কমোডটি উজ্জ্বল ও পরিষ্কার হবে।

৫। ভিনেগার ও বোরাক্স

কমোডে ফ্ল্যাশ করে নিয়ে এর মধ্যে বরিক পাউডার ছিটিয়ে দিন। এর উপর ভিনেগার স্প্রে করুন। এভাবে ৩০ মিনিট বা তার বেশি সময় রেখে দিন। তারপর ব্রাশ করে ধুয়ে ফেলুন।

৬। ক্যাস্টাইল সোপ ও বেকিং সোডা

অলিভ অয়েল ও সোডিয়াম হাইড্রোক্সাইড দ্বারা নির্মিত হয় ক্যাস্টাইল সোপ। একটি বড় পাত্রে ১/৪ কাপ পরিমাণ তরল ক্যাস্টাইল সোপ নিয়ে এর সাথে ৩/৪ কাপ পরিমাণ পানি নিন এবং এর সাথে ২ টেবিলচামচ বেকিং সোডা ও ৮-১০ ফোঁটা এসেনসিয়াল অয়েল বা লেবুর রস দিন। সবগুলো উপাদান ভালো করে মিশিয়ে একটি স্প্রে বোতলে ভরে নিন। বোতলটি ভালোভাবে ঝাঁকিয়ে নিয়ে কমোডে স্প্রে করুন এবং ব্রাশ দিয়ে মেজে নিন। তারপর ফ্ল্যাশ করন।






মন্তব্য চালু নেই