মেইন ম্যেনু

কর্মস্থলে ভালো লাগছে না? জেনে নিন ভালো লাগার কিছু কৌশল!

বর্তমান সময়ে একটি চাকরি পাওয়া অনেক কষ্টসাধ্য বিষয়। অনেক কষ্ট, সাধনার পর একটি চাকরি পেলেন। কিন্তু চাকরিটি আপনার পছন্দ হচ্ছে না, তখন কী করবেন? চাকরিটি ছেড়ে দেবেন? চাইলেও সেটি করা সম্ভব নয়। তাহলে কী করবেন তখন? বর্তমানের চাকরটিকে পছন্দ করার শুরু করুন! আর তাই জেনে কিছু কৌশল অবলম্বন করে সেটি করা সম্ভব।

১। চাকরির কারণটি মনে করুন

আপনি চাকরি কেন করছেন? আর্থিক সচ্ছলতার কারণে? নাকি সময় কাটানোর জন্য? নাকি আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতাকে কাজে লাগানোর জন্য? চাকরির কারণটি খুঁজে বের করুন। দেখবেন আপনার পরিবার বা আপনি নিজে চাকরির উপর অনেকখানি নির্ভর করছেন। কারণটি খুঁজে পেলে দেখবেন অপছন্দের চাকরিটিও আপনি সহজে করতে পারছেন।

২। চাকরির পছন্দের অংশটুকু লক্ষ্য রাখুন

আপনি সারাদিন নানা কাজ করে থাকেন। কিন্তু এত কাজের মাঝে কিছু অংশ আছে যা আপনি পছন্দ করেন। সেটি হতে পারে সহকর্মীদের সাথে চা খাওয়া অথবা দুপুরের খাবার একসাথে খাওয়া ইত্যাদি। কিংবা কাজের পরিবেশটি আপনার পছন্দ। চাকরির অপছন্দের দিকটি এড়িয়ে যান, আর পছন্দের দিকটির দিকে মনোযোগী হন। সহকর্মীদের আড্ডা ভাল লাগলে কাজের ফাঁকে সেটি কিছুক্ষণ করুন। দেখবেন আস্তে আস্তে খারাপ লাগা চাকরিটি ভাল লাগতে শুরু করবে।

৩। আপনি কি ক্যারিয়ার ওরিয়েন্টেড?

আপনি কি ক্যারিয়ার সচেতন? অনেক বেশি উচ্চাকাঙ্ক্ষী ক্যারিয়ার নিয়ে? তবে চাকরি ভাল না লাগলেও চাকরিটি করুন। বার বার চাকরি পরিবর্তন করা ক্যারিয়ারে জন্য ভাল নয়। এটি আপনার চাকরির ক্ষেত্রে খারাপ ইমপ্রেশন ফেলবে।

৪। এড়িয়ে চলুন

কর্মক্ষেত্র অপছন্দের অন্যতম একটি কারণ থাকে সহকর্মী। অফিসের কোন সহকর্মী অপছন্দের হলে তাকে এড়িয়ে চলুন। প্রয়োজন ছাড়া তার সাথে কথা বলা থেকে বিরত থাকুন। এড়িয়ে যাওয়া আপনার অনেক সমস্যার সমাধান করে দেবে।

৫। কাজের সময় পরিবর্তন করুন

আপনার কাজের সময় এবং বাচ্চার স্কুলের সময় কি একসাথে হয়ে গেছে? কিংবা আপনার অন্য কোন কাজের সময় অফিসের সময় এক হয়ে যাচ্ছে? আর এই কারণে জব ছেড়ে দিতে চাচ্ছেন? তবে একবার ভাবুন। সহকর্মী বা বসের সাথে কথা বলুন। সময়টি কারোর সাথে পরিবর্তন করে নিন। প্রায়ই অফিসে শিফট পরিবর্তন করার সুযোগ রয়েছে।

৬। অর্থ, অর্থ এবং অর্থ

মানুষ কেন চাকরি করে? টাকার জন্য? আপনার কাছে যখন টাকা থাকবে আপনার মন ভাল থাকবে। আপনি আত্ননির্ভরশীল হবেন। এই একটি কারণই অপছন্দের চাকরিটি আপনি করতে পারেন।

৭। সম্পর্ক তৈরি করুন

কাজের একঘেয়ামিতা কাটানোর জন্য কর্মস্থলটিকে আন্দনময় করে তুলুন। সহকর্মীদের সাথে সুন্দর একটি সম্পর্ক গড়ে তুলুন। চেষ্টা করুন সবার সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ আচারণ করার। এক নাগাড়ে কাজ একঘেয়ামিতা তৈরি করার পাশাপাশি কাজে অনাগ্রহতা সৃষ্টি করে থাকে।

চেষ্টা করুন আপনার অপ্রিয় চাকরটিকে প্রিয় চাকরিতে পরিণত করার। এই কৌশলগুলো আপনাকে সাহায্য করবে।






মন্তব্য চালু নেই