মেইন ম্যেনু

কলকাতার ২৩৯ কৃষক ‘কোটিপতি’ !

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতার বাসিন্দাদের মধ্যে ২৩৯ জন ‘কোটিপতি কৃষক’ রয়েছেন বলে খবর প্রকাশ করেছে দেশটির বাংলা দৈনিক এবেলা।

সূত্রের বরাত দিয়ে খবরে বলা হয়, ২০০৮-০৯ থেকে ২০১৫-১৬ অর্থবর্ষে কলকাতার ২৩৯ জন বাসিন্দা আয়কর দফতরে নথি পেশ করে জানিয়েছেন, কৃষি থেকে তাঁরা নাকি কোটি টাকারও বেশি আয় করেছেন। দেশের বড় শহরগুলোর মধ্যে ‘কোটিপতি কৃষিজীবী’র সংখ্যায় তিন নম্বরে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী।

আয়কর দফতর সূত্রের খবর, ওই ৯ অর্থবছরে ২,৭৪৬ জন নাগরিক তাঁদের আয়ের নথি পেশ করে জানিয়েছেন যে, কৃষি থেকে নাকি তাঁরা কোটি টাকার বেশি আয় করেছেন। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ‘কোটিপতি কৃষক’ রয়েছেন বেঙ্গালুরুতে (৩২১ জন)। তারপরেই রয়েছে দিল্লির নাম (২৭৫)। তালিকায় কলকাতার পরে যে শহরগুলো রয়েছে সেগুলো হল যথাক্রমে মুম্বাই (২১২), পুনে (১৯২), চেন্নাই (১৮১), হায়দরাবাদ (১৬২), তিরুঅনন্তপুরম (১৫৭) এবং কোচির (১০৯) নাম।

তবে এই সমস্ত ‘কোটিপতি’র মধ্যে প্রকৃত ‘কৃষক’ কতজন, তা নিয়ে যথেষ্টই সংশয় রয়েছে। আয়কর দফতরের ধারণা, এঁদের মধ্যে অনেকেই কর ফাঁকি দিতে (যেহেতু কৃষি থেকে আয় করযোগ্য নয়) অন্য সূত্র থেকে আয়কে কৃষি-আয় বলে চালাতে চেষ্টা করেছেন। বিষয়টি নিয়ে আয়কর দফতর ইতিমধ্যে তদন্তও শুরু করেছে।

প্রসঙ্গত, অমিতাভ বচ্চনও নিজেকে ‘কৃষিজীবী’ বলে একাধিকবার দাবি করেছেন। ২০০৭ সালে কৃষক পরিচয়ে উত্তরপ্রদেশের বারাবঁকী জেলায় তিনি একটি জমি কিনলে মামলা হয়। আদালত পরে রায় দেয়, অমিতাভ ‘কৃষক’ নন।






মন্তব্য চালু নেই