মেইন ম্যেনু

কলারোয়ায় উৎসবমুখর পরিবেশে ইউপি নির্বাচনের প্রতীক বরাদ্দ

কামরুল হাসান, কলারোয়া : সাতক্ষীরার কলারোয়ায় উৎসবমুখর পরিবেশে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ১২ টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত আসন ও সাধারণ সদস্য প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।
বৃহস্পতিবার প্রতীক বরাদ্দের নির্ধারিত দিনে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাসহ ৬ জন রিটার্নিং কর্মকর্তা স্ব-স্ব ইউনিয়নের প্রার্থীদের উপস্থিতিতে এসব প্রতীক বরাদ্দ দেন। দলীয় প্রার্থীদের প্রতীক এর আগে জানা গেলেও বৃহস্পতিবার ৩৩ জন স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ সংরক্ষিত ও সাধারণ সদস্য পদ প্রার্থীদের প্রতীক দেওয়া হয়।

প্রতীক পাওয়া ৩৩ জন স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন- উপজেলার ১নং জয়নগর ইউনিয়নে প্রয়াত তপন চেয়ারম্যানের সহধর্মিনী বিশাখা সাহা (অটোরিকাসা), প্রভাষক মনিরা পারভীন (আনারস), আব্দুর রউফ বাচ্চু (ঘোড়া), সিদ্দিকুর রহমান (টেবিল ফ্যান), শফিকুর রহমান মালি (মোটরসাইকেল), হাবিবুর রহমান (চশমা), ২নং জালালাবাদ ইউনিয়নে প্রধান শিক্ষক আব্দুল খালেক (আনারস), বর্তমান চেয়ারম্যান মাস্টার শওকত আলী (চশমা), ৩নং কয়লা ইউনিয়নে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ ইমরান হোসেন (আনারস), ৪নং লাঙ্গলঝাড়া ইউনিয়নে প্রধান শিক্ষক নূরুল ইসলাম (আনারস), লুৎফর রহমান (চশমা), ৫নং কেঁড়াগাছি ইউনিয়নে আফজাল হোসেন হাবিল (আনারস), মারুফ হোসেন (মোটারসাইকেল), ৭নং চন্দনপুর ইউনিয়নে আয়ুব হোসেন আনছারী (ঘোড়া), বর্তমান চেয়ারম্যান রমজান আলী (টেবিল ফ্যান), অধ্যাপক রুস্তম আলী (মোটরসাইকেল), হারুন-অর-রশীদ (চশমা), ৮নং কেরালকাতা ইউনিয়নে আনছার আলী (ঘোড়া), সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ (আনারস), ফারুক হোসেন (মোটরসাইকেল), ৯নং হেলাতলা ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন (মোটরসাইকেল), ইকবল হোসেন (টেলিফোন), সাবেক চেয়ারম্যান আবু তালেব সরদার (চশমা), অধ্যক্ষ বিল্লাল হোসেন (আনারস), ১০নং কুশোডাঙ্গা ইউনিয়নে সাবেক চেয়ারম্যান সাঈদ আলী গাজি (চশমা), জহুরুল হক (টেবিল ফ্যান), শেখ জাকির হোসেন (মোটরসাইকেল), জাহাঙ্গীর হোসেন (আনারস), সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ (টেলিফোন), ১১ নং দেয়াড়া ইউনিয়নে নাজমা পারভীন (মোটরসাইকেল), প্রয়াত আনারুল চেয়াম্যানের ভাতিজা সাংবাদিক মেহেদী মাসুদ (আনারস), ১২ নং যুগিখালী ইউনিয়নে ওজিয়ার রহমান (আনারস)।

এদিকে, আ.লীগ দলীয় চেয়ারম্যান (নৌকা) প্রার্থীরা হলেন-১ নং ইউনিয়নে সামছুদ্দীন আল মাসুদ বাবু, ২ নং ইউনিয়নে অধ্যাপক আমজাদ হোসেন, ৩ নং ইউনিয়নে মহিদুর রহমান, ৪নং ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান প্রভাষক এম এ কালাম, ৫ নং ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান ভুট্রোলাল গাইন, ৬ নং ইউনিয়নে বিনা প্রতিদ্বদ্বিতায় নির্বাচিত মনিরুল ইসলাম, ৭নং ইউনিয়নে মনিরুল ইসলাম মনি, ৮ নং ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান স.ম.মোরশেদ আলী, ৯ নং ইউনিয়নে সরদার আনছার আলী, ১০ নং ইউনিয়নে আসলামুল আলম আসলাম, ১১ নং ইউনিয়নে মাহবুবুর রহমান মফে ও ১২নং ইউনিয়নে রবিউল হাসান।

অন্যদিকে, বিএনপি দলীয় চেয়ারম্যান (ধানের শীষ) প্রার্থীরা হলেন-১নং ইউনিয়নে সাবেক চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান আলমগীর, ২নং ইউনিয়নে রবিউল ইসলাম, ৪ নং ইউনিয়নে প্রধান শিক্ষক জাহাঙ্গীর হোসেন, ৫নং ইউনিয়নে সাবেক চেয়ারম্যান আশরাফ হোসেন, ৭নং ইউনিয়নে আশরাফুজ্জামান মন্টু, ৯নং ইউনিয়নে সরদার মুনছুর আলী, ১০ নং ইউনিয়নে প্রভাষক শাহাদাৎ হোসেন।

ওয়ার্কাস পার্টির চেয়ারম্যান (হাতুড়ি) প্রার্থীরা হলেন- ৩নং কয়লা ইউনিয়নে অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রউফ, ৭নং চন্দপুর ইউনিয়নে বদরুজ্জামান।

এছাড়া, জাসদের চেয়ারম্যান (মশাল) প্রার্থীরা হলেন- ১নং ইউনিয়নে ইসমাইল সরদার, ২ নং ইউনিয়নে রেজাউল ইসলাম, ৭নং ইউনিয়নে শাহাজাহান আলম।

অন্যদিকে, উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে সংরক্ষিত মহিলা আসনে ১০৪ জন ও সাধারণ সদস্য পদে ৩৮৭ জন প্রার্থীর প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে বলে উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে।






মন্তব্য চালু নেই