মেইন ম্যেনু

কলারোয়ায় দুই প্রতারক আটক

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করে ইটালীতে পালিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতিকালে শনিবার ভোর রাতে থানা পুলিশ দুই প্রতারককে আটক করেছে। আটককৃতারা হলো-উপজেলার পৌর সদরের মুরারীকাটি গ্রামের মৃত. শেখ আতিয়ার রহমানের ছেলে শেখ শওকত আলী (৬০) ও শেখ বাবু আহম্মেদের স্ত্রী রেহেনা পারভীন (২৩)। কলারোয়ার থানার এসআই কে এম মোয়াজ্জেম হোসেন ও এএসআই জিন্নাত হোসেন জানান, আটককৃৃতদের বিরুদ্ধে সাতক্ষীরা আদালতে সিআর-৩৫৫/১৫ মামলায় ওয়ারেন্ট রয়েছে।

আদালতের ওয়ারেন্ট থাকায় তাদের আটক করে আদালতের মাধ্যমে জেলা হাজতে পাঠানো হয়েছে। জানা গেছে, কলারোয়া উপজেলার শ্রীপতিপুর গ্রামের মৃত খন্দকার আঃ রহমানের ছেলে ব্যবসায়ী খন্দকার রকিব এর কাছ থেকে উপজেলার মুরারীকাটি গ্রামের শেখ শওকত আলীর ছেলে শেখ বাবু আহম্মেদ (৩০), মোছাঃ রেহেনা পারভীন (২৩) ও শেখ শওকত আলী (৬০) প্রতারনামূলক ইটালীতে নিয়ে যাওয়ার নাম করে ব্যবসায়ী খন্দকার রকিব এর কাছ থেকে গত ২৫ ডিসেম্বর -১২সালে নগদ ৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা গ্রহণ করে। যা ওই প্রতারক ব্যক্তি ষ্ট্যাম্পে অঙ্গীকার করে।

বিভিন্ন তালবাহনা শেষে ওই প্রতারক চক্র ব্যবসায়ী খন্দকার রকিবকে ইটালীতে চাকুরী না দেওয়ায় সমুদয় টাকা ফেরৎ দেওয়ার জন্য স্থানীয়দের সামনে অঙ্গীকার করে। পরে টাকা ফেরৎ না দেওয়ায় ব্যবসায়ী খন্দকার রকিব বাদী হয়ে সাতক্ষীরা আদালতে ৪০৬, ৪১৭ ও ১০৯ দঃ বিঃ ধারায় একটি সিআরপি নং-৩৫৫/১৫ মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় আসামিরা আদালতের আদেশ অমান্য করে পালিয়ে বেড়ায়। পরে আদালত তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করে।

এই গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী হওয়ার পরে গোপনে মামলার আসামী শেখ বাবু আহম্মেদ, মোছাঃ রেহেনা পারভীন ও শেখ শওকত আলী ইটালী (বিদেশে) পালিয়ে যাওয়ার জন্য পাসপোর্ট, ভিসা তৈরী করে। শনিবার ভোর রাতে তারা ইটালীতে পালিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতিকালে খবর পেয়ে থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুইজনকে তাদের বাড়ি থেকে আটক করে। এসময় পুলিশ মামলার ১ নং আসামি শেখ বাবু আহম্মেদকে আটক করতে পারেনি। পুলিশ তাকে খুঁজছে।






মন্তব্য চালু নেই