মেইন ম্যেনু

কলারোয়ায় নির্বাচনী পথসভায় সন্ত্রাসী হামলা

জুলফিকার আলী, কলারোয়া (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধিঃ কলারোয়ায় এক নির্বাচনী পথসভায় সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে এক বীরমুক্তিযোদ্ধাসহ নৌকা প্রতীকের ১০/১৫জন কর্মীকে জখম করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে, শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার কেরালকাতা ইউনিয়নে দক্ষিণ বহুড়া গ্রামে।

গতকাল শনিবার সকালে কলারোয়া সরকারী হাসপাতালে চিকিসাধীন উপজেলার নাকিলা গ্রামের মনিরউদ্দিনের ছেলে সাহাজুল ইসলাম জানান, শুক্রবার রাতে বহুড়া গ্রামের সোহাগ হোসেনের দোকানের সামনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী স.ম মোরশেদ আলীর এক নির্বাচনী পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। পথসভা শেষে বাড়ী ফেরার পথে দক্ষিণ বহুড়া গ্রামের আঃ মজিদের বাড়ীর সামনে পৌছালে পূর্বে থেকে ওৎ পেতে থাকা সস্ত্রাসী ফারুকের নেতৃত্বে শামিম, মনি, মাহাবুল, পলাশ, আতাউর, রশিদ, আরশাদ, মনজু, রউফ, শিমুল, আজগরসহ ১৫/২০ জনের একটি দল লাঠি সোটা ও দেশীয় অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে তাদের উপর হামলা করে। সন্ত্রাসীদের এলোপাতাড়ী হামলায় বলিয়ানপুর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা অজিয়ার রহমান (৬৫), নাকিলা গ্রামের মনিরউদ্দিনের ছেলে সাহাজুল (৩০), ফাজিলকাটি গ্রামের সুলতান মোল্লার ছেলে নজরুল ইসলাম (৫৫), দক্ষিণ বহুড়া গ্রামের আকরম আলীর ছেলে আনিছ (৩৫), আয়নুদ্দিন মোড়লের ছেলে নুর ইসলাম (৫০) সহ ১০/১৫ জন জখম হয়েছে। আহতদের কলারোয়া হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে।

ওই রাতে খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনা স্থান পরিদর্শন করেছেন। এদিকে কেরালকাতা ইউনিয়নের জনপ্রিয় চেয়ারম্যান স.ম মোরশেদ আলী সাংবাদিকদের জানান, তিনি আসান্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে শুক্রবার রাতে এলাকাবাসীর সাথে নিয়ে বহুড়া গ্রামের সোহাগ হোসেনের দোকানের সামনে নৌকা প্রতীকের এক পথ সভার আয়োজন করেন। সেখানে বিপুল পরিমান ভোটারগণ উপস্থিত হওয়ায় একটি পক্ষের ইন্দনে সন্ত্রাসী ফারুকের নেতৃত্বে তার নেতাকমীদের উপর হামলা চালায়।

এতে ১৫জনের মতো কর্মী জখম হয়েছে। এছাড়া তিনি আরো বলেন, সন্ত্রাসীরা যত বড় শক্তিশালী হোক না কেন এবার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিজয় লাভ করবেন বলে তিনি আশাবাদি। এদিকে হামলার ঘটনায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোন অভিযোগ দায়ের হয়েনি বলে জানা গেছে।






মন্তব্য চালু নেই