মেইন ম্যেনু

কলারোয়ায় হাজারও মানুষের ভালবাসায় সিক্ত হয়ে চির বিদায় নিলেন শিক্ষক আঃ খালেক

কামরুল হাসান, কলারোয়া : সাতক্ষীরার কলারোয়ায় হাজারও মানুষের শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় সিক্ত হয়ে চির নিদ্রায় শাহিত হলেন উপজেলার বাঁটরা হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক আঃ খালেক (৫০)। তিনি উপজেলার জালালাবাদ ইউনিয়নেরে বাঁটরা গ্রামের মরহুম বজলুর রহমান (বজলে মোড়লের) এর ছেলে। রোববার রাত পৌনে ১২টার দিকে তিনি হাটাৎ বুকে যন্ত্রনা অনুভব করেন। এ মসয় কাউকে কিছু বুঝে উঠার আগেই তিনি মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়েন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ১ছেলে ১মেয়েসহ অসংখ্য গুনাগ্রাহী রেখে গেছেন। সোমবার বেলা ২টায় নিজ হাতে তিল তিল করে গড়ে তোলা প্রতিষ্ঠান বাঁটরা মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে হাজারও মুসুল্লীদের উপস্থিতিতে এক বিশাল জানাযা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম লাল্টু, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আবদুল হামিদ, সাবেক অধ্যক্ষ রইচ উদ্দিন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রধান শিক্ষক আমানুল্লাহ আমান, জেলা আ.লীগ নেতা কলারোয়া বাজার কমিটির সভাপতি আরাফাত হোসেন, পাইলট হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক আবদুর রব, কলারোয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শেখ জুলফিকারুজ্জামান জিল্লু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বেত্রবতী হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক রাশেদুল হাসান কামরুল, রিপোর্টাস ক্লাবের সভাপতি আজাদুর রহমান খান চৌধুরী পলাশ, সাংগঠনিক সম্পাদক জুলফিকার আলী, প্যানেল মেয়র মাস্টার মনিরুজ্জামান বুলবুল, জালালাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান শওকত আলী, কয়লা ইউপি চেয়ারম্যান শেখ ইমরান হোসেন, জয়নগর ইউপি ইউপি সামসুদ্দিন আল মাসুদ বাবু, দেয়াড়া ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান মফে, উপজেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক স,ম মোরশেদ আলী, রবিউল আলম মল্লিক রবি, উপজেলা জাতীয় শ্রমিকলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম, পৌরসভা আওয়ামীলীগের সভাপতি আজিজুল ইসলাম, সমাজ কল্যাণ সম্পদক ফজলুর রহমান, ইউনিয়ন আ.লীগ সভাপতি মশিয়ার রহমান, সাধারণ সম্পাদক শেখ মোসলেম আহম্মেদ, প্রভাষক রফিকুল ইসলাম, শিক্ষক আসাদুজ্জামান, আক্তারুজ্জামান, মাওলানা আবু দাউদ, আসাদুজ্জামান ফারুকী, আ.লীগনেতা মফিজুল হাসান লাভলু, ডা. আমান, জিকরিয়া, কলারোয়া থানার স্টাফ আনোয়ার হোসেনসহ অসংখ্য শিক্ষক ও আত্মীয়-স্বজন। জানাযা নামাজ পরিচালনা করেন মাওলানা রুহুল আমিন। জানাযার নামাজ শেষে মহুরম আঃ খালেককে পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই